নিরাপদ খাদ্য সম্মেলন, ২০১৬


বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য নেটওয়ার্ক-এর উদ্যোগে নিরাপদ খাদ্য সম্মেলন ২০১৬ (Safe Food Conference 2016) কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের গিয়াসউদ্দিন মিল্কি অডিটোরিয়াম, খামারবাড়ি, ফার্মগেট, ঢাকায় সকাল ৯:৩০ মিনিটে অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ ফুড সেফটি নেটওয়ার্ক (বিএফএসএন) নিরাপদ খাদ্য বিষয়ে জনসচেতনামূলক কার্যক্রম ও নিরাপদ খাদ্য প্রাপ্তি নিয়ে কাজ করে এমন ৫টি সংগঠনের একটি নেটওয়ার্ক। এই নেটওয়ার্কের সদস্য সংগঠনগুলো হচ্ছে কনজুমারস্ এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব), উবিনীগ, হাঙ্গার ফ্রি ওয়ার্ল্ড, শিউশুক ও বি-সেফ ফাউন্ডেশন। এই নেটওয়ার্কটি জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও) এর সহযোগিতায় ২০১০ সালে গঠিত হয়।

নিরাপদ খাদ্য সম্মেলন, ২০১৬ শীর্ষক এ সম্মেলনের শুরুতেই নয়াকৃষি আন্দোলনের কৃষক ও নবপ্রাণ আন্দোলনের সঙ্গীত শিল্পীরা তাদের গানের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সকলকে সচেতন করেন। নয়াকৃষি আন্দোলনের কৃষক নেতা আক্কাছ আলী গানটির কথা ও সুর রচনা করেছেন।

গানের কথা

শোন ওরে ভাই আর বোন
সবাই হও সচেতন
নিরাপদ খাদ্য খাইয়া বাঁচাও এ জীবন।

পঁচা বাসি খোলা খাবার
বিষের খাদ্যে নাইরে নিস্তার
রোগ জীবাণু করে বিস্তার ডাক্তারী প্রমাণ
নোংরা হাত নোংরা পানি
পশু পাখি- ইঁদুর প্রাণী
পোকা মাকড় মাছি জানি খাদ্যের কমায় মান।

আম কাঁঠাল জাম আনারসে
কলা, কমলা, আপেল, মাছে
কেমিকেল দিয়া ফলের মাঝে স্বাদ করে হরণ।

বিষ বানাইছে কোম্পানী তাই তো মোদের প্রাণ হানি
জমিতে বিষ প্রয়োগে সব হচ্ছে দূষণ।

খাদ্যের মাঝে কারিগরী
রোগ ব্যাধি ছাড়েনা বাড়ি শেষে হয় মরণ।

ভেবে কৃষক আক্কাছ বলে ভালভাবে বাঁচতে হলে
নিরাপদ খাদ্যের জন্যে কর আন্দোলন গো।।


নিারপদ খাদ্য সম্মেলন ২০১৬


বক্তারা বলেন, খাদ্যে অতিরিক্ত রাসায়নিক সার ও কীটনাশকের ব্যবহার, মাছ ও ফলে নানা রকম রাসায়নিক দ্রব্য মিশ্রণ, অন্যান্য প্যাকেটজাত খাবারে ভেজাল ও ক্ষতিকারক রং- এর ব্যবহারে ফলে মানুষের রোগ বেড়ে চলেছে।

প্রধান অতিথি অর্থ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি সভাপতি ও সাবেক খাদ্য মন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক এমপি বলেন, জনগণের জন্য নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতেই সরকার আইন প্রণয়ন করেছে। কিন্তু আইনের বাস্তবায়ন একটি বড় চ্যালেঞ্জ। এ জন্য সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি বিভিন্ন সংগঠনের উদ্যোগে জনগণের সম্পৃক্ততা বাড়াতে হবে। কারণ আইন অনেক আছে, অনেক হয়েছে, কিন্তু আইনের বাস্তবায়নটা সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

এই সম্মেলনে নিরাপদ খাদ্য বিষয়ক কাজের সাথে সংশ্লিষ্ট সরকারি কর্মকর্তাবৃন্দ, নিরাপদ খাদ্য বিষয়ক বিশেষজ্ঞগণ, সুশীল সমাজের প্রতিনিধিবৃন্দ, এনজিও প্রতিনিধিবৃন্দ, কৃষকসহ ৩৫টি জেলা থেকে ২৫০ প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।


নিারপদ খাদ্য সম্মেলন ২০১৬
ছবিতে উপস্থিত সুধীমণ্ডলী



ছাপবার জন্য এখানে ক্লিক করুন


৫০০০ বর্ণের অধিক মন্তব্যে ব্যবহার করবেন না।