মাননীয় প্রধান নির্বাচন কমিশনার এর সমীপে তাবিনাজের স্মারকলিপি প্রদান


আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থীদের ভোট প্রচারণায় তামাকদ্রব্যের ব্যবহার নিষিদ্ধ করার আহবান জানিয়ে মাননীয় প্রধান নির্বাচন কমিশনার এর সমীপে তাবিনাজের স্মারকলিপি প্রদান

৮ নভেম্বর, ২০১৮ বেলা ৩: ০০ টায় নির্বাচন কমিশন কার্যালয়, শেরে বাংলা নগর, আগারগাঁও, ঢাকায় তাবিনাজ (তামাক বিরোধী নারী জোট) এর সমন্বক সাইদা আখতার এর নেতৃত্বে ১২ জন নারী প্রতিনিধি (ঢাকা সহ ৭টি বিভাগ থেকে আসা - ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা, বরিশাল, ময়মনসিংহ, সিলেট, রাজশাহী ও রংপুর) জনাব কে এম নূরুল হুদা, মাননীয় প্রধান নির্বাচন কমিশনার এর সমীপে একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন।

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থীদের ভোট প্রচারণায় তামাকদ্রব্য (বিড়ি, সিগারেট, পানের সাথে জর্দা, সাদাপাতা এবং গুল) এর ব্যবহার নিষিদ্ধ করার আহবান জানিয়ে এই স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। দীর্ঘ দিনের অভিজ্ঞতায় দেখা গেছে নির্বাচনী প্রচারণায় তামাকজাত দ্রব্য-যেমন বিড়ি, সিগারেট, পানের সাথে জর্দা, সাদাপাতা এবং গুল চায়ের দোকানে এবং নির্বাচনী প্রচার কেন্দ্রে অবাধে বিক্রি এবং বিতরণ করা হয়। যে তামাকজাত দ্রব্য জনস্বাস্থ্য, পরিবেশ ও অর্থনীতির জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর।

বাংলাদেশে নির্বাচন প্রচারণায় ও নির্বাচন কালে তামাক দ্রব্য (সিগারেট, বিড়ি, জর্দা, গুল ও সাদাপাতা) ব্যবহার লক্ষণীয়। তামাক ব্যবহার নিয়ন্ত্রণের জন্য ”ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) আইন, ২০০৫ (২০১৩ সালের সংশোধনী)” আইনের ধারা ৫ এর উপ-ধারা (১) এর উদ্দেশ্য পূরণকল্পে, “তামাকজাত দ্রব্যের বিজ্ঞাপন প্রচার” অর্থ প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে কোনো তামাকজাত দ্রব্য বা তামাকের ব্যবহার প্রবর্তনের উদ্দেশ্যে যে কোন ধরণের বাণিজ্যিক কার্যক্রম পরিচালনা করা। নির্বাচন প্রচারণায় বা নির্বাচন কালে তামাক দ্রব্য (বিড়ি, সিগারেট, জর্দা, গুল ও সাদাপাতা) ব্যবহারের মাধ্যমে তামাক কোম্পানী এক ধরনের তামাক পণ্যের প্রচারণা করার সুযোগ নেয় যা জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর।



তামাক দ্রব্য (বিডি, সিগারেট, জর্দা, গুল ও সাদাপাতা) এর ব্যবহারে জনস্বাস্থ্যের ওপর নেতিবাচক প্রভাবের কথা বিবেচনা করে অসন্ন একাদশ জাতীয় নির্বাচনে নির্বাচন কমিশনের ক্ষমতা প্রয়োগের মাধ্যমে কোন প্রকার তামাকদ্রব্য ব্যবহার না করতে দেয়ার জন্য তামাক বিরোধী নারী জোট (তাবিনাজ) এর প্রতিনিধিবৃন্দ প্রধান নির্বাচন কমিশনার এর সমীপে বিশেষভাবে অনুরোধ জানান।

তাবিনাজের দাবী:

১। আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসীলে কিংবা নির্বাচনের আচরণ বিধিতে ভোট সংক্রান্ত প্রচারণার সময় কোন প্রকার তামাক (বিডি, সিগারেট, জর্দা, গুল ও সাদাপাতা) ব্যবহারন যেন না হয় তার জন্য বিশেষ নজরদারী গ্রহণ করা প্রয়োজন।

২। বিড়ি সিগারেটের পাশাপাশি পানের সাথে জর্দা ব্যবহারও তামাকদ্রব্যের ব্যবহার হিসেবে চিহ্নিত করতে হবে এবং নারী ভোটার আকৃষ্ট করতে গিয়ে পানের সাথে জর্দা-সাদাপাতার ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ করতে হবে।

৩। নির্বাচনী প্রচারণায় তামাক দ্রব্যের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ব্যবহার প্রার্থীর নির্বাচনী আচরণ বিধি লংঘন হিসেবে গণ্য করতে হবে।

৪। কোন প্রার্থী সম্পর্কে তামাক দ্রব্য ব্যবহার করার অভিযোগ পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে হবে।

৫। ভোট কেন্দ্র এবং ভোট কেন্দ্রের আশে পাশে ৫০০ মিটার পর্যন্ত এলাকা তামাকদ্রব্যমুক্ত ঘোষণা করতে হবে।


ছাপবার জন্য এখানে ক্লিক করুন


৫০০০ বর্ণের অধিক মন্তব্যে ব্যবহার করবেন না।