বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস ২০১৪


প্রতি বছর ১৫ অষ্টোবর বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস পালিত হয়। হাত ধোয়া অভ্যাসের মাধ্যমে রোগ প্রতি রোধের জন সচেতনতা সৃষ্ঠির উদ্দেশ্যে দিবসাটি পালিত হয়। বিশ্ব ব্যাপি ২০০৮ সাল থেকে এ দিবস পালিত হয়ে আসছে। সত্তরটি দেশে প্রায় ১২০ মিলিয়ন ছেলে মেয়ে প্রতি বছর এ অনুষ্ঠানে অংশে গ্রহন করেন। এ বছর ও লক্ষ লক্ষ ছেলে মেয়ে পাঁচটি মহাদেশে এ অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণ করছে।

বিশ্ব ব্যাপি শিশুরা, মাতাপিতা, শিক্ষকরা, সরকারি ও বেসকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকতারা প্রাণঘাতি রোগ যেমন- ডাইরিয়া, ইনফ্লুয়েনঞ্জা এবং অন্যান্য সংক্রামক রোগ প্রতিরোধের জন্য হাত ধোয়ার গুরুত্ব সম্পর্কে জন সচেতনতা সৃষ্ঠি করবেন। আসুন! আমরাও এ দেশের সকল মানুষকে সুস্থ থাকতে সহায়তা করি। হাত ধোয়ার অভ্যাস সম্পর্কে সচেতন করি।


 

হাত ধোয়া


শিশুরাই সাধারণত ডাইরিয়া রোগে বেশী আক্র্যান্ত হয়। পৃথিবীতে প্রতি বছর ৩.৫ মিলিয়ন শিশু, যাদের বয়স পাঁচ বছরের কম, ডাইরিয়া ও নিউমোনিয়ায় মারা যায়। শুধু মাত্র সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার অভ্যাসের মাধ্যমে ডাইরিয়ায় আক্রান্ত শিশুদের সংখ্যা ৬০% এবং শ্বাস-কষ্ঠে আক্রান্ত শিশুর সংখ্যা ২৫% কমানো যেতে পারে।

 

এবছর বিশ্ব হাত ধোয়া দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয়ঃ “পরিস্কার হাত জীবন বাঁচায়”। এ শ্লোগানের মূল নিশানা শিশুরা এবং স্কুল। শিশুরাই জাতির ভবিষ্যৎ। পরিবর্তনের শক্তি। সুস্বাস্থ্যর ভাল অভ্যাস গুলি স্কুল থেকে পরিবারে এবং সমাজে পৌঁছে দেবেন শিশুরাই। সাবান দিয়ে হাত ধোয়া, বিশোষ করে টয়লেট ব্যবহারের পরে এবং খাদ্র্য দ্রব্যে হাত দেবার আগে হাত ধোয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ অভ্যাস। হাত ধোয়ার অভ্যাস খুব ভাল অভ্যাস। এ বছরের হাত ধোয় দিবসের অনুষ্ঠানে স্বতস্ফুর্তভাবে আমরা সকলে অংশগ্রহণ করতে পারি। হাত ধোয়ার পক্ষে জন সচেতনতা সৃষ্ঠি করতে পারি।


Click Here To Print


Comments Must Be Less Than 5,000 Charachter