উবিনীগ


উন্নয়ন বিকল্পের নীতি নির্ধারণী গবেষণা

তামাকের শৃংখল থেকে মুক্তিঃ

খাদ্য সংকট, পরিবেশ ও মানুষের স্বাস্থ্যের ক্ষতি রোধে তামাক চাষ নিয়ন্ত্রণ

তামাক কোন খাদ্য ফসল নয়, এমনকি কৃষি ফসলের পর্যায়েও পড়ে না। প্রয়োজনীয় কোন শিল্পের কাঁচামালও নয়। তামাক চাষ করা হয় পাতা উৎপাদন করার জন্যে যে পাতায় নিকোটিন থাকে বলে এই পাতা দিয়ে বিভিন্ন মানের ও ব্রান্ডের সিগারেট তৈরী করা হয়, বিড়ি ও জর্দা-গুল তৈরি করা হয়। বিশ্বব্যাপী এখন সচেতনতা বৃদ্ধ্বি এমন পর্যায়ে এসেছে যে ধূমপান ও ধোঁয়াবিহীন তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর এবং অনেক অসংক্রামক রোগ (NCD) যেমন হার্ট এটাক, হাই-ব্লাড প্রেসার, শ্বাস কষ্ট জনিত রোগ, ডায়াবেটিস ও অন্ত্রনালীর রোগের জন্যে দায়ী। সারা বিশ্বে প (আরো পড়ুন )


তামাকের ক্ষতি বনাম তামাক কোম্পানির পুরস্কার!

চলছে তামাক পাতার চাষ

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা আয়োজিত আবুধাবিতে ১৭ থেকে ২১ মার্চ অনুষ্ঠিত হলো ১৬তম 'তামাক নাকি স্বাস্থ্য' সম্মেলন। অসংক্রামক ব্যাধি (Non-Communicable Disease, NCD) এর আলোকে এ সম্মেলনে ব্যাপক আলোচনা হয়েছে। অনেক বড় সম্মেলন, প্রায় ১০০ দেশ থেকে ২ হাজার ১৮৪ জন অংশগ্রহণ করেছেন; কিন্তু আগে যারা অন্যান্য সম্মেলনে গেছেন তাদের এখানে অংশগ্রহণ আশানুরূপ ছিল না, বরং ছিল হতাশাব্যাঞ্জক। এ সম্মেলন আবুধাবিতে হওয়ার কারণে ভিসার সমস্যা ছিল বাংলাদেশসহ অনেক দেশের। বাংলাদেশ থেকে মাত্র আটজন যেতে পেরেছেন, যেখানে অন্তত ৩০ জন টিকিট কেটে হোটেল বুকিং দিয়ে এবং তাদের নিজ নিজ কাজ সম্পর্কে প্রস্তুতি (আরো পড়ুন )


ধোঁয়াবিহীন তামাকজাত দ্রব্যেরও কর বাড়ানো হোক

জাতীয় বাজেটে জনগণের ব্যবহার্য নিত্যপ্রয়োজনীয় ও বিলাস দ্রব্যের ওপর কর আরোপ করা হলে সে পণ্যের দাম বাড়বে কী বাড়বে না তা নির্ধারিত হয়। আমরা জানি, কর আরোপের সাধারণ উদ্দেশ্য রাজস্ব আয় বৃদ্ধি করা; কিন্তু রাজস্ব বৃদ্ধি করতে গিয়ে জনগণের ওপর যেন চাপ সৃষ্টি না হয় তার দিকেও নজর দিতে হয়। সরকারের দিক থেকে এসব বিষয় লক্ষ্য রাখা অত্যন্ত জরুরি। কর আরোপের মাধ্যমে নিষিদ্ধ নয়; কিন্তু মানুষের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর পণ্যের ব্যবহার কমানো ওই বিশেষ কৌশলে একটি বিশেষ পদক্ষেপ হিসেবে নেয়া যেতে পারে।

এমন কিছু পণ্য আছে যা ক্ষতিকর; কিন্তু দামে সস্তা হওয়ার কারণে ব্যবহার কমানো সম্ভব হয় না। সেক্ষেত্রে উচ্চ হারে কর আরোপ করে দাম বাড়িয়ে দেয়া জরুরি পদক্ষেপ হিসেবে স্বীক (আরো পড়ুন )


বিষাক্ত তামাকের হাত থেকে জীবন রক্ষা চাই

তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন সংশোধন

কিছু তথ্য ভয়াবহ। যেমন, তামাক ব্যবহারের প্রত্যক্ষ্ ফল হিসেবে প্রতি বছর ৩০ বছরের বেশী বয়স্ক জনগোষ্ঠির মধ্যে প্রতি বছর ৫৭,০০০ জন মৃত্যু বরণ করেন এবং ৩,৮২,০০০ জন পঙ্গুত্ব বরণ করেন। এই তথ্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার। এই সংখ্যা প্রতি বছরের। গত দশ বছরের হিশাব নিলে মাথা ঘুরে যাবে। আবার নিজে ধূমপান না করেও অন্যের ধূমপানের ফলে কর্মক্ষেত্রে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন ১ কোটি ১৫ লক্ষ মানুষ। বাড়ী ঘর, রাস্তা ঘাটের হিশাব নিলে এই সংখ্যা দুই তিনগুণ বেড়ে যাবে। বলা বাহুল্য, এর শিকার প্রধানতঃ নারী।

বাংলাদেশে ১৫ বছরের বেশী জনগোষ্ঠির মধ্যে ৪৩.৩% মানুষ কোন না কোনভাবে তামা (আরো পড়ুন )