Search   Phonetic Unijoy  English 

খবরাখবর, অনুষ্ঠান ও ঘোষণা


মিয়ানমারে রোহিঙ্গা গণহত্যা চলছে। প্রায় ৫০ ভাগের কাছাকাছি রোহিঙ্গাদের গ্রাম জ্বলিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে এবং রোহিঙ্গাদের বিতারিত করেছে। এটা একটি গণ হত্যা। রোহিঙ্গা গণ হত্যা বন্ধ করতে হবে। রোহিঙ্গা নির্যাতন, ধর্ষণ, অগ্নিসংযোগ চরম মানবাধিকার লঙ্ঘন। অবিলম্বে রোহিঙ্গা নারী ও শিশুদের ওপর অত্যাচার বন্ধের দাবি জানানো হয়। মিয়ানমারে যে গণহত্যা ও নির্যাতন চলছে তা অবিলম্বে বন্ধ করার দাবি জানানো হয়।


সম্পুর্ণ অবহেলা ও পরিকল্পনাহীনতার প্রকাশ ঘটেছে বাজেট ২০১৭-১৮ এর স্বাস্থ্য খাতে বাজেট বরাদ্দে। স্বাস্থ্য আন্দোলন, তাবিনাজ, পাবলিক হেলথ ফাউন্ডেশান, ডাব্লিও বিবি ট্রাস্ট, নিরাপদ ডেভেল্পমেন্ট ফাউন্ডেশান, নারীপক্ষ ও উন্নয়ন ধারা ট্রাস্টের যৌথ আয়োজনে ৬ জুন,২০১৭ সকাল ১১টায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক সংবাদ সম্মেলন এই বক্তব্য তুলে ধরা হয়।


বাংলাদেশ ফুড সেফটি নেটওয়ার্ক (বিএফএসএন) এর আয়োজনে ২৪ মে, বুধবার ২০১৭ তারিখে সকাল ১১:০০টায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (নীচতলা), সেগুনবাগিচা, ঢাকায় ‘রমজান মাসের রকমারী ইফতার’ নিরাপদ খাদ্যের আলোকে আলোচনা, শীর্ষক এক মতবিনিময় সভার অয়োজন করা হয়।

মতবিনিময় সভা আয়োজন করেন বিএফএসএন এর সদস্য সংগঠন: উন্নয়ন বিকল্পের নীতিনির্ধারনী গবেষণা (উবিনীগ), কনজুমার এ্যসোসিয়েশান অব বাংলাদেশ (ক্যাব), বিসেফ ফাউন্ডেশান, শিশউক ও হাংগার ফ্রি ওয়ার্ল্ড। পরিবেশ, শিক্ষা, উন্নয়ন, নারী সংগঠন, সরকারী সংসগঠন, দাতা সংস্থা, আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধি ও সাংবাদিকসহ মোট অংশগ্রহণকারী ছিলেন ৮৫ জন।


২০ মে দুনিয়াজুড়ে মনসান্তোর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সমাবেশ বা March Against Monsanto 2017 অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বাংলাদেশেও এই প্রতিবাদ হচ্ছে। টাঙ্গাইল ও পাবনার গ্রাম পর্যায়ে নয়াকৃষি আন্দোলনের উদ্যোগে  নারী পুরুষ মিলে প্রায় ৫০০ কৃষক নারী-পুরুষ সকাল ১০টায় প্রতিবাদ সমাবেশে অংশগ্রহণ করেন। টাঙ্গাইলে সিলিমপুর বাজারে ১৩টি গ্রামের নয়াকৃষির কৃষক এবং পাবনার টংবয়রা গ্রামে ৫টি গ্রামের কৃষক একত্রিত হন।


নয়াকৃষি আন্দোলন ও উবিনীগ আয়োজিত এই প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয় ৪ মে, ২০১৭ (বৃহস্পতিবার) সকাল ১০:৩০ টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের, তৃতীয় তলায়। এই প্রেস ব্রিফিং এ উপস্থিত ছিলেন, কৃষি বিজ্ঞানী, আইনজীবি, চিকিৎসক, সাংবাদিক, শিক্ষক ও বেসরকারী প্রতিনিধিবৃন্দ। সভাপতিত্ব করেন ডা. জাফরুল্লাহ্ চৌধুরী, ট্রাষ্টি, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র। মনসান্তো ট্রাইবুনাল সম্পর্কে বিস্তারিত বর্ণনা দেন ফরিদা আখতার, নির্বাহী পরিচালক, উবিনীগ।


ফকির লালন শাহ-এর দোল উৎসব ২৭ থেকে ২৯ ফাল্গুন, ১৪২৩ (১১ – ১৩ মার্চ, ২০১৭)। এটাই অনেকের কাছে ‘দোল’ বা দোল উৎসব’ নামে পরিচিত। কিন্তু গৌর পূর্ণিমার তাৎপর্য ভুলে গেলে এই উৎসবের কিছুই আর অবশিষ্ট থাকে না। এ সময় কুষ্টিয়ার ছেঁউড়িয়ায় প্রতিবছর লাখ লাখ লালন অনুসারী, ভক্ত, অনুরাগী ও পরমার্থিক প্রেমের কাঙ্গাল নানান মনের আশেকান ছেঁউড়িয়ায় সাঁইজীর ধামে আসেন। প্রতি বছরের মতো এবারও আপনি এবং আপনার বন্ধু-বান্ধব নবপ্রাণ আখড়াবাড়িতে আন্তরিক ভাবে আমন্ত্রিত।


তামাক দ্রব্যের দাম বৃদ্ধি এবং ব্যবহার নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে বলে আন্তর্জাতিক ভাবে স্বীকৃত। ধোঁয়াযুক্ত তামাক দ্রব্য যেমন সিগারেটের উপর কর বৃদ্ধি করে দাম বাড়ান হচ্ছে কিন্তু জর্দা, গুল ও সাদাপাতার উপর কর বৃদ্ধি করা হলেও এর দাম কম হওয়ার কারণে ক্রেতাদের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে যাওয়ার মতো বৃদ্ধি এখনও হয়নি। এ বিষয়ে নীতিনির্ধারণী পর্যায়ে যথেষ্ট পর্যালোচনা ও গবেষণা হয় নি।


বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার ‘ফেইম ওয়ার্ক কনভেনশান অন টোবাকো কন্ট্রোল’-এর সদস্যভূক্ত দেশগুলোর সাত নম্বর সভা হচ্ছে দিল্লীতে। উবিনীগের পক্ষ থেকে ফরিদা আখতার সেখানে এবার অংশগ্রহণ করছেন। এবার তামাক নিয়ন্ত্রণ কনভেনশানের ১৭ ও ১৮ অনুচ্ছেদ বিশেষ ভাবে আলোচনা করা হবে।

উবিনীগ নয়াকৃষি আন্দোলনের কৃষকদের সঙ্গে তামাক চাষের ক্ষেতগুলোকে কিভাবে খাদ্য উৎপাদনের জমিতে আবার ফিরিয়ে আনা যায় তা নিয়ে লড়ছে দীর্ঘদিন ধরে। কিভাবে সফল ভাবে সেটা সম্ভব সেটা বাস্তবে করিয়েও দেখিয়েছে। ফলে নয়াকৃষি কিভাবে তামাক চাষ বাদ দিয়ে কৃষকদের আবার ফসল উৎপাদনে আকৃষ্ট করেছে সে ব্যাপারে আন্তর্জাতিক উৎসাহ অনেক বেড়েছে। কথা বলা সহজ কিন্তু বাস্তবে করে দেখানো কঠিন কাজ। তামাক কোম্পানিগুলো, বলা বাহুল্য, এই সাফল্যের কথা প্রচারিত হোক তা চায় না। তবে এই কাজের সাফল্যের একটা দিক হচ্ছে এফটিসিটি ফেইম ওয়ার্ক কনভেনশানের ১৭ ও ১৮ অনুচ্ছেদ নিয়ে আলোচনা উবিনীগ ও অন্যান্য গবেষণা প্রতিষ্ঠানের কাজের কারনে এখন অনেক সহজ হয়েছে।


ফকির লালন সাঁইজীর ১২৬-তম তিরোধান দিবস পালিত হলো নবপ্রাণ আখড়াবাড়িতে। নবপ্রাণ আখড়াবাড়িতে সারাবছরই ফকির লালন সাঁইজির ‘কালাম’ উচ্চারিত হয়। তাঁর গান ও তত্ত্বচর্চা চলে। সরকারিভাবে পহেলা কার্তিককে মৃত্যু বার্ষিকী হিসাবে উদযাপন করলেও নবপ্রাণ আখড়াবাড়ি এই দিনটিকে উদযাপন করে সাধুগুরুর ভাষায়: ‘তিরোধান দিবস’ হিসাবে। ফকির লালন সাঁইয়ের বিখ্যাত একটি গানের চরণ থেকে এবারের অনুষ্ঠানের শিরোনাম ছিল: “কে তোমার আর যাবে সাথে”! গানটির শুরু নিজেদের প্রশ্ন করার মধ্যে যে ‘যখন কালের হাতে আমাদের পড়তে হবে তখন ভাই, বন্ধু কেউ সাথে যাবে না। একাই যেতে হবে। ফকির লালন সাঁইজী এ কথাই বলে গেছেন। তাঁর মহিমা কতোটুকুই বা আমরা বুঝতে পেরেছি।


অনুষ্ঠিত  হল “স্বাস্থ্য সূচকে পিছিয়ে থাকা অঞ্চল: পর্যালোচনা ও করণীয় নির্ধারণ” ২৯ অক্টোবর, ২০১৬ বিকেল ৩টায় ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবের ভি.আই.পি লাউঞ্জে স্বাস্থ্য আন্দোলন এবং উবিনীগ আয়োজিত  শীর্ষক এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।


রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাপনা উপেক্ষিত স্বাস্থ্য বাজেট এ বিষয়টি নিয়ে স্বাস্থ্য আন্দোলন ও উবিনীগের পক্ষ থেকে ২৬ জুন, ২০১৬ তারিখে সকাল ১১:৩০ মি: জাতীয় প্রেসক্লাবের তৃতীয় তলার হলরুমে এক মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়।


বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবস, ৩১ মে তারিখে ওসমানী মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সরকারের অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম উবিনীগের নির্বাহী পরিচালক ফরিদা আখতারের হাতে ক্রেস্ট ও সনদপত্র তুলে দিচ্ছেন।


নিরাপদ খাদ্য বিষয়ে শিক্ষকদের ভূমিকা শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। টাঙ্গাইল জেলার রিদয়পুর বিদ্যাঘরে উবিনীগ ও দেলদুয়ার উপজেলা পরিষদ।


চরের মানুষ কষ্ট করে স্বাস্থ্য সেবার জন্য হাসপাতালে গেলেও বেশীরভাগ সময় তারা সঠিক চিকিৎসা পায় না। হাসপাতালে ডাক্তার থাকে না। অনেক সময় বলা হয় ‘এখন ডাক্তার নাই পরে আস’।


স্বাস্থ্য সেবা শুধুমাত্র হাসপাতাল, ডাক্তার-নার্স, ওষুধ ও চিকিৎসা নয়। স্বাস্থ্য সেবার সাথে যুক্ত হয়েছে পুষ্টিহীনতা, খাদ্য বাহিত রোগ, জীবন যাপনের ধরণ, নগরায়ন, পরিবেশ, সড়ক দুর্ঘটনা, ডুবে যাওয়া, রাজনৈতিক হানাহানি, কারখানায় আগুন, ট্রমাজনিত রোগ, অটিজম ও প্রতিবন্ধীতা ইত্যাদিসহ অনেক রোগ যা একজন সুস্থ মানুষকে পরক্ষণে অসুস্থ করে ফেলতে পারে। এর সাথে দেশের উন্নয়ন ও মানুষের আর্থ-সামাজিক ও রাজনৈতিক অবস্থা জড়িয়ে আছে।


ডায়বেটিস সংক্রান্ত সচেতনতা ও প্রতিরোধের উপায়- নিয়ে এক মুক্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় ৬ এপ্রিল বিকেল ৩ টায় নারীগ্রন্থ প্রবর্তনায় ।


এবার গৌরপূর্ণিমায় ছেঁউড়িয়ায় সাধুসঙ্গের স্মরণে নবপ্রাণ আখড়াবাড়ীর অনুষ্ঠানের শিরোনাম, 'ঘরে বাস করে সেই ঘরের খবর নাই'। যে ঘরে আমরা বাস করি সেই ঘরের কোন খবর আমাদের নাই।

সবাই নবপ্রাণ আখড়াবাড়ির অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত।

ছেঁউড়িয়ায় নবপ্রাণ আখড়াবাড়িতে ভাবান্দোলন নিয়ে চৈত্রের ৩, ৪ ও ৫ (মার্চের ১৭, ১৮ আর ১৯) তারিখের সভা শেষ হয়েছে। নদিয়ার ভাবচর্চার ধারার মধ্যে গড়ে ওঠা যে সকল প্রতিজ্ঞা, প্রত্যয় ও ধারণা চিন্তার নতুন দিগন্ত চিহ্নিত ও আবিষ্কার করবার সহায়ক তার কয়েকটি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। যাঁরা অংশগ্রহণ করেছিলেন তাঁদের সবাইকে নবপ্রাণ আখড়াবাড়ির পক্ষ থেকে অসংখ্য ধন্যবাদ। তাঁদের অংশগ্রহণ এবং প্রশ্ন আলোচনাকে প্রাণবন্ত করেছে। এখন মার্চের ২২ তারিখে আমরা গৌর পূর্ণিমায় ফকির লালন শাহের প্রবর্তিত সাধুসঙ্গের স্মরণে ছেঁউড়িয়ায় উৎসবের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি। লালন একাডেমি ২৩, ২৪ ও ২৫ ‘লালন স্মরণোৎসব’ হিসাবে পালন করছে। সবাইকে আমন্ত্রণ।


১৯ মার্চ, ২০১৬ থেকে সিগারেট, বিড়ি, জর্দা, গুলসহ সকল তামাকজাত দ্রব্যের প্যাকেটে আইন মেনে ছবিসহ স্বাস্থ্য সতর্ক বার্তা বাস্তবায়নের দাবিতে তামাক বিরোধী ১২টি সংগঠন-সংহতি জানিয়ে অংশগ্রহণ করে।


‘ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) বিধিমালা ২০১৫’ অনুযায়ী ১৯ মার্চ, ২০১৬ তারিখ থেকে ধোঁয়াবিহীন তামাকজাত দ্রব্যের ক্ষেত্রে ‘ধারা ১০: ২:খ (অ) তামাকজাত দ্রব্য সেবনে মুখ ও গলায় ক্যান্সার হয় এবং ধারা ১০: ২:খ (আ) তামাকজাত দ্রব্য সেবনে গর্ভের সন্তানের ক্ষতি হয়- সচিত্রবাণী মূদ্রণ করা বাধ্যতামূলক।


‘নিরাপদ খাদ্য সমাবেশ, ২০১৬’ অনুষ্ঠিত হলো ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ টাংগাইলের নান্দুরিয়া গ্রামে। দেলদুয়ার উপজেলাকে নিরাপদ খাদ্য উপজিলা হিসাবে গড়ে তোলার ঘোষণা বাস্তবায়িত করবার অংশ হিসাবে  নয়াকৃষি আন্দোলনের এই সমাবেশ। শেষে নিরাপদ খাদ্য সমাবেশ থেকে একটি র‌্যালী নান্দুরিয়া গ্রাম প্রদক্ষিণ করে পাশের গ্রাম মৌসাকাঁঠালিয়াতে শেষ হয়। এই র‌্যালীতে প্রায় ২০০ জন গ্রামের মানুষ অংশগ্রহণ করে।


আমরা সকলি যানি, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার ২০১৪ সালে রোগী এবং স্বাস্থ্য সেবা প্রদানকারী ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের সুরক্ষার জন্য দুটো আইন আলাদাভাবে প্রস্তাব আকারে জনসাধারণের মতামতের জন্য পেশ করেছিল। দু’বছর পেরিয়ে গেলেও এর কোন অগ্রগতি হয় নি। সরকার পুনরায় চলতি বছরের শুরুতে ওই আইন দুটো ২০১৬ সালে নতুন করে প্রস্তাব করেছে। এরই প্রেক্ষিতে স্বাস্থ্য আন্দোলন এই মতবিনিময় সভার আয়োজন করেন।


নিরাপদ খাদ্য সম্মেলন, ২০১৬ শীর্ষক এ অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, খাদ্যে অতিরিক্ত রাসায়নিক সার ও কীটনাশকের ব্যবহার, মাছ ও ফলে নানা রকম রাসায়নিক দ্রব্য মিশ্রণ, অন্যান্য প্যাকেটজাত খাবারে ভেজাল ও ক্ষতিকারক রং- এর ব্যবহারে ফলে মানুষের রোগ বেড়ে চলেছে।


শেষ হলো ‘ধোঁয়াবিহীন তামাকজাত দ্রব্য এবং তামাক চাষ নিয়ন্ত্রণে নারীর ভূমিকা’ শীর্ষক তাবিনাজ সম্মেলন- ২০১৫


কৃষিতে অবদানের জন্য জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা টাঙ্গাইল দেলদুয়ার উপজেলার নয়াকৃষি আন্দোলনের কিষাণি রিনা বেগমকে  পুরস্কার করেছেন।  জাতিসংঘ খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও) ২০১৫ সালের বিশ্ব খাদ্য দিবস ১৬ অক্টোবর উপলক্ষ্যে এই স্বীকৃতি ও পুরস্কার দিয়েছে। খাদ্য ও কৃষি সংস্থার আঞ্চলিক কার্যালয় রিনাকে পুরস্কার গ্রহণ করবার জন্য ব্যাংকক পাঠিয়েছে। জাতিসংঘ খাদ্য ও কৃষি সংস্থার পক্ষ থেকে  থাইল্যান্ডের রানী তাকে পুরস্কার প্রদান করেন।

উবিনীগ ও নয়াকৃষি আন্দোলনের পক্ষ থেকে তাঁকে অভিনন্দন।

 


বাংলাদেশে জিএমও ফসলের প্রবর্তন করার চেষ্টা শুরু হয়েছে এবং আগামি মৌসুমে বিটিবেগুনের পাশাপাশি ‘ব্রি ধান-২৯’ কে জিন প্রযুক্তির মাধ্যমে ‘ভিটামিন-এ ধান’ হিসেবে প্রবর্তন করার উদ্যোগও নেয়া হচ্ছে। কৃষিতে বৈজ্ঞানিক বিশেষতঃ জিন প্রযুক্তি ব্যবহারের ক্ষেত্রে দেশের ফসলের বৈচিত্র্য, পরিবেশ ও স্বাস্থ্য ঝুঁকি সৃষ্টি বিবেচনায় নেওয়া নীতিনির্ধারক ও বিজ্ঞানীদের দায়িত্বের মধ্যে পড়ে।


হাত ধুয়ে খাবার খেলে, সুন্দর স্বাস্থ্য ও আনন্দ মেলে। বিশ্ব হাতধোয়া দিবস উদযাপন ২০১৫।
নবপ্রাণ আখড়াবাড়ি কুষ্টিয়া।


ফকির লালন সাঁইজীর ১২৫তম তিরোধান দিবস। প্রতি বারের মতো এবারও কুষ্টিয়ার মৃত কালিগঙ্গা নদীর তীরে বসে ছিল লালন অনুসারীদের মিলন মেলা। অন্যান্য বারের তুলনায় এবারের মিলন মেলায় বহু লোকের সমাগম হয়েছি। তাছাড়া অন্যরকম একটা আমেজও ছিল। মনে হয়েছে লালন শাহ নিজে সবার মধ্যে বিরাজ করছেন।


আগামি ১৫ জুন, ২০১৫ শস্য প্রবর্তনায় সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা অবধি বেগুন মেলার আয়োজন করা হয়েছে। উদ্যোক্তা শস্য প্রবর্তনা, উবিনীগ, নয়াকৃষি এবং নিরাপদ খাদ্য নেটওয়ার্ক। আপনি সবান্ধব আমন্ত্রিত।


২৩ মে বিশ্ব মনসান্তো বিরোধী সংগ্রাম দিবস
নয়াকৃষি আন্দোলনের ডাক: মনসান্তো কোম্পানির বীজ ডাকাতি রুখে দাঁড়াও। বীজ সম্পদ রক্ষায় বাংলাদেশের কৃষক এক হও


তামাক কোম্পানী ব্রিটিশ আমেরিকান টোবাকো কোম্পানীকে পুরস্কার দেওয়া ও গ্রহণ করা নারীর অবমাননা ও আইনের লঙ্ঘন, এই পুরস্কার প্রত্যাহার করতে হবে।


“সকল প্রকার গুম-খুন, হত্যা ও সহিংসতা বন্ধ কর, জনগণের অংশগ্রহণে অবিলম্বে রাজনৈতিক সমাধান চাই” এই দাবীতে নারীগ্রন্থ প্রবর্তনা ও ‘আমরাও নারী’ এর যৌথ আয়োজনে ৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস, ২০১৫ উপলক্ষে ঢাকায় ধানমন্ডির রবীন্দ্র সরোবরের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।


ছেঁউড়িয়া, কুমারখালি কুষ্টিয়া। নবপ্রাণ আন্দোলনের আখড়াবাড়িতে বাউল সম্রাট ফকির লালন সাঁইজির তিনদিন ব্যাপি ১৪২১ সালের দোল উৎসব শেষ হোল । সাইজির ধামে যে উৎসব চলে তার পাশাপাশি নবপ্রাণ প্রতিবছর এই অনুষ্ঠানটি পালন করে।


নয়াকৃষি আন্দোলনের কৃষকদের নিয়ে ২৮-২৯ ডিসেম্বর, ২০১৪ দুই দিন ব্যাপী “শস্য উৎপাদন ও বাজারজাতকরণ” এর উপর এক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হলো টাঙ্গাইল জেলার বিষ্ণুপুর গ্রামে রিদয়পুর বিদ্যাঘরে। এই প্রশিক্ষণ আয়োজন করে উবিনীগ। ‘প্রাণবৈচিত্র্য রক্ষায় সামাজিক ব্যবস্থাপনা’ নিয়ে দক্ষিণ এশিয়ায় অন্যান্য সংগঠনের সঙ্গে উবিনীগের যে উদ্যাগ তারই অধীনে এই আয়োজন। সার ও বিষমুক্ত নয়াকৃষির ফসল কিভাবে ভোক্তাদের কাছে পোঁছানো যায় তাই নিয়ে এই প্রশিক্ষণ।


আমাদের সকলের শ্রদ্ধেয় ও প্রাণপ্রিয় প্রফেসর লতিফা আকন্দ আপা ইহজগতের মায়া কাটিয়ে পরপাড়ে পাড়ি জমিয়েছেন গত বুধবার ৩ ডিসেম্বর, ২০১৪ রাত ১ টায় (ইন্না লিলাহে ওয়া ইন্না ইলাইহে রাজিউন)। তিনি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক।




ফরিদা আখতার


Tuesday 08 August 2017

দেশে জাতীয় নির্বাচনের মাত্র দেড় বছর বাকী, এই সময়ে জনগণের ভোটের অধিকার প্রয়োগের নিশ্চয়তা নিয়ে শান্তিপুর্ণভাবে নিরপেক্ষ একটি নির্বাচন হবে কিনা এসব প্রশ্ন নিয়ে আমাদের সংবাদ মাধ্যম ব্যস্ত থাকার কথা। কিছুটা থাকছেও। তাছাড়া বন্যা পরিস্থিতি, ঢাকা ও চট্টগ্রাম শহরের অতিবৃষ্টিতে সৃষ্ট জলজট, পাহাড়ধস, খাদ্য ঘাটতির সম্ভাবনা – কোনটাই কম নয়। দেশের মানুষের জন্যে দুশ্চিন্তার বিষয়। কিন্তু এতো সব জরুরি বিষয় থাকতে আমরা ব্যাস্ত থাকতে বাধ্য হচ্ছি ধর্ষণ ও নির্যাতনের মতো নির্মম ও পৈশাচিক ঘটনা নিয়ে। জাতীয় পর্যায়ের খবরের একটি বড় অংশ জুড়ে রয়েছে নারী নির্যাতন বা আরো স্পষ্ট করে বললে নারী ধর্ষণের কথা। মর্মান্তিক এবং ভয়াবহ এসব ঘটনা, এখানে বয়সের বা স্থান কাল পাত্রের

Read more... View: 349 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Sunday 23 July 2017

লোকে প্রায় বলে আপনারা অনেক জাতীয় গুরুত্বপুর্ণ কাজ করেন কিন্তু প্রচার কম। কথাটি সত্যি। আসলেই অনেকে জানেন না আমাদের যেসব কাজ গ্রামে-গঞ্জে রয়েছে তার কোন জাতীয় মূল্য রয়েছে কিনা। আমাদের পরিচিতজনেরা দেখে মুগ্ধ্ব হন এবং আক্ষেপ করেন প্রচার নাই কেন! কিন্তু শুধু প্রচারের জন্য কাজ করার তো কোন অর্থ নাই। একটি কাজ আর দশটি প্রচার – এটা আমাদের নীতি নয়। তাই প্রচারের জন্য যে সময় দেয়া দরকার তা আমরা দেইনি। কিন্তু যদি দিতামও তাহলে কি আমাদের দেশে প্রচারের যে সব মাধ্যম রয়েছে তারা এগুলো গ্রহণ করতো? তার জন্যও এক ধরণের প্রস্তুতির প্রয়োজন হয়, কারণ যে সকল ক্ষেত্র নিয়ে কাজ করি সেই ক্ষেত্রগুলো সম্পর্কে সমাজে কিছু প্রাথমিক সচেতনতা ও বোঝার আগ্রহ আগে তৈরি করা দরকার।

Read more... View: 358 Leave Comment (0)


নয়াকৃষি আন্দোলন


Monday 24 April 2017

বহুজাতিক কম্পানির প্রাণ বিনাশী ভূমিকা

একালে মানুষসহ সকল প্রাণের চরম হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে গুটিকয়েক বহুজাতিক কর্পোরেশান। তাদের বিষ, রাসায়নিক দ্রব্য ও নানান ক্ষতিকর পণ্য উৎপাদন ও ব্যবহার প্রকৃতি ও পরিবেশ ধ্বংস করছে। প্রকৃতি ও পরিবেশ তারা বিষাক্ত করে তুলছে। প্রাণ আজ সর্বত্রই বিপন্ন। আগে তাদের প্রধান ব্যবসা ছিল ক্ষতিকর রাসায়নিক পদার্থ এবং বিশেষ ভাবে কীটনাশক বা বিষ বেচা। এখন তারা বীজের ব্যবসা ও কৃষিতে ঢুকেছে। সারা দুনিয়ার খাদ্য ব্যবস্থা তারা নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেবার জন্য উন্মাদ হয়ে উঠেছে। মানুষ না খেয়ে বাঁচতে পারবে না। খাদ্য ব্যবস্থা – অর্থাৎ উৎপাদন থেকে শুরু করে বিপণণ ও ভোগের প্রতিটি চক্রের ওপর তারা তাদের একচেটিয়া

Read more... View: 2803 Leave Comment (1)


ফরিদা আখতার


Friday 14 April 2017

বলা হয়, বাংলাদেশে কৃষি কী তার পরিচয় ধান উৎপাদনের মধ্যে। কিন্তু কথাটা একাট্টা ধানের আবাদ যেমন নয়, তেমনি স্রেফ ধান চাষও নয়। কারন ভুলে যাওয়া উচিত নয় যে সরকারী হিসাবেই বাংলাদেশে ধানের জাতর সংখ্যা প্রায় পনেরো হাজারেরও বেশি ছিল। তাদের মৌসুম, চাষের সময় পানির পরিমান, ফটো পিরিয়ড বা দিনের আলো ব্যাবহারের সময়কাল এক রকম ছিল না। প্রাণের বৈচিত্র্যের চর্চা হাজার হাজার জাতের ধান আবাদের মধ্যেই ধরা পড়ত।

স্রেফ ধান চাষ নয় কেন? কারণ জমিতে কখন কি ধান বুনছি তার সঙ্গে জমির ব্যবহার ও ব্যবস্থাপনার প্রশ্ন জড়িত। ধানচাষ কেন্দ্রিক একটি বাস্তুসংস্থান পদ্ধতি বা ইকোসিস্টেম গড়ে উঠেছিল। সেই সবের কিছুই আধুনিক চাষাবাদের ফলে আর নাই। এখন দেশে কোন বছর কত ধান উৎপাদন হচ্ছে ত

Read more... View: 755 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Wednesday 18 January 2017

‘তামাক মৃত্যু ঘটায়’— এটি এখন কোনো কথার কথা নয়, বাস্তবে প্রমাণিত সত্য। শুধু মৃত্যু নয়, তামাক সেবনের কারণে ব্যবহারকারী যেসব মারাত্মক রোগের শিকার হয়, তা ভুক্তভোগীমাত্রই আমাদের অনেকের চেয়ে ভালো জানে। কিন্তু তামাক নেশাদ্রব্য, সহজে ছাড়া যায় না। বিষয়টি এখন বিশ্বে উদ্বেগ সৃষ্টি করেছে। প্রতিরোধযোগ্য এ রোগ ও মৃত্যু ঠেকাতে তাই বিশ্বব্যাপী তামাক নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম চলছে এবং অনেক ক্ষেত্রে সফলভাবে তামাক সেবন নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে। বাংলাদেশ সরকারও এ লক্ষ্যে কাজ করছে, কিন্তু তামাক কোম্পানির আগ্রাসী প্রভাবে এখনো কাঙ্ক্ষিত ফল পাওয়া যাচ্ছে না। কোম্পানি তামাক নিয়ন্ত্রণ হোক— এটা চায় না। তাতে তাদের ব্যবসায়িক ক্ষতি। তাই নিত্যনতুন কারসাজিতে

Read more... View: 821 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Monday 07 November 2016

তামাক সেবন ও উৎপাদন যা-ই করুন না কেন তা স্বাস্থ্য, পরিবেশ ও চারপাশে যারা আছেন, তাদের সবারই ক্ষতি করে। যে শিশু জন্ম নেয়নি, মায়ের পেটে রয়েছে, তার জন্যও তামাক সেবনকারী ক্ষতির কারণ হতে পারে। বড়ই নিষ্ঠুর ও হত্যাকারী এই পণ্য। নেশা জাগানো তামাকের কোনো ভালো গুণ খুঁজে পাওয়া যাবে না। এবং নেশা জাগানো যে কী ক্ষতি বয়ে আনতে পারে, তা একমাত্র ভুক্তভোগী ও তার পরিবার জানে। এর ক্ষতি নিয়ে বিতর্ক নেই, কিন্তু আফসোস হয় তামাকের নানা পণ্য, নানা ব্র্যান্ডের সিগারেট, বিড়ি, জর্দাগুলোর রমরমা ব্যবসা চলছে। কোম্পানিগুলো নানা কৌশলে এ ক্ষতিকর পণ্যের প্রতি ক্রেতাকে আকৃষ্ট করে তাদের বেঁধে ফেলেছে।

তামাকজাত দ্রব্যের উৎপাদন ও ব্যবহার জনস্বাস্থ্য, পরিবেশ, সামাজিক ও অর্থনৈ

Read more... View: 1096 Leave Comment (0)


সাইদা আখতার


Monday 29 August 2016

জাতিসংঘ প্রণীত টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য বা Sustainable Development (SDG) একটি বৈশ্বিক কর্মসূচী। একে বাদ দিয়ে এখন উন্নয়ন পরিকল্পনা করার সুযোগ কম। ২০৩০ সাল পর্যন্ত সার্বিক উন্নয়নের চিন্তা করতে হবে এই এসডিজি ঘিরেই। সহস্রব্দ উন্নয়ন লক্ষ্য (MDG) পথ ধরে এসডিজি আসে। এসডিজি লক্ষ্য মাত্রা অর্জন করতে হলে সরকার এবং বেসরকারী প্রতিষ্ঠান একত্রে কাজের পরিকল্পনা করতে হবে। এসডিজির একটি উল্লেখযোগ্য দিক হচ্ছে শুধু নিজের দেশের উন্নয়ন করলে হবে না, এক দেশের সঙ্গে অন্য দেশের আয় বৈষম্যের যে পার্থক্য রয়েছে সেটাও কমিয়ে আনতে হবে। মানব পাচার রোধ ও নারী শিশুর প্রতি নির্যাতন রোধ, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত করা, পাচার বা চুরি হওয়া সম্পদ উদ্ধার এবং দূনীতি কমানোর লক্ষ্য অবশ্যই অর্

Read more... View: 1533 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Saturday 27 August 2016

একের পর এক জিএম ফসলের প্রবর্তন করে এদেশের গরিবের পেটে লাথি মারার মতো কাজ শুরু হয়েছে। সাধারণ মানুষের খাবারের তালিকায় কী থাকে? তারা মাছ মাংস খেতে পারে না দামের কারণে, মাসে একদিন কি দুদিন বড় জোর খাওয়া হয়। প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় থাকে সহজলভ্য সব্জি। বেগুন ভাজি বা আলু বেগুনের সব্জি, আলু ভর্তা, ডাল ও ভাত খেয়েই সাধারণ মানুষের জীবন চলে। দ্রুত রান্নার সুবিধার জন্য শহরের বসবাসকারী শ্রমিকেরা এই খাদ্য খেয়েই তাঁরা কারখানায় যান কাজ করতে। বেগুন ও আলুর মধ্যে পুষ্টিগুন ও বিদ্যমান। নারীদের জন্যে বিশেষ করে এই সব্জি খুব উপকারী। সবমিলিয়ে বেগুন ও আলু মানুষের অতি প্রিয় সব্জি – ধনী গরিব সবাই নানাভাবে এই সব্জি খান। অন্যদিকে কৃষকদের মধ্যে ক্ষুদ্র কৃষকরাই ব

Read more... View: 2185 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Monday 22 August 2016

দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি্র কারনে জনগণের দৈনন্দিন জীবন জীবিকার সংগ্রাম কঠিন হয়ে পড়েছে। বিরোধী রাজনৈতিক দলের ন্যায়সঙ্গত  দাবী-দাওয়া উপেক্ষার ফলে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা, হরতাল, অবরোধ ইত্যাদি ম্রহনত মানুষের জীবনকেও অতীষ্ঠ করে তোলে। যে কোন রাজনোইতিক কিম্বা সামাজিক অস্থিতিশীলতা দেশের অর্থনীতিকে পিছিয়ে দেয়ার জন্য এবং বিশেষ করে কৃষকের ফসল বাজারে আসার ক্ষেত্রে বাধা সৃষ্টির জন্য যথেষ্ট। আর সময়মতো ফসল বাজারজাত করতে না পারলে কৃষকের ক্ষতি হয় এ কথা সর্বজনবিদিত। ফসল বাজারজাত করতে না পারা শুধু রাজনৈতিক খারাপ পরিস্থিতিতেই হয় না, অন্যান্য স্বাভাবিক সময়েও একই ঘটনা ঘটে। ঢাকায় যে সবজি ২০ টাকা কেজি বিক্রি হয় তা গ্রামে বিক্রি হয় মাত্র ২ টাকায় বা ৫ টাকায়। আলু

Read more... View: 2134 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Friday 12 August 2016

গত শতাব্দি থেকে একটি নাম নারী-পুরুষ নির্বিশেষে সকল শিক্ষিত মানুষের কাছে পরিচিত এবং গ্রহণযোগ্য সে নাম হচ্ছে রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেন। তাঁকে সংক্ষেপে বেগম রোকেয়া বলা হয়, যদিও এই বেগম কোথা থেকে এলো তার কোন হদিস পাওয়া যায় না। বেগম তাঁর নামের অংশ নয়। তার আসল নাম রোকেয়া খাতুন। মুসলিম পরিবারের অতি চেনা একটি নাম। জন্ম ১৮৮০ সালে রংপুর জেলার মিঠাপুকুর উপজেলার পায়রাবন্দ গ্রামে। রোকেয়ার কারণে পায়রাবন্দ গ্রামও সারা বিশ্বে পরিচিত। শহর গ্রাম সব জায়গায় মেয়েদের নাম ‘রোকেয়া’ রাখা হয়। আমার বিশ্বাস রোকেয়ার কাজের কারণেও এই নাম অনেক প্রচার পেয়েছে। তাঁর বাবা জহিরুদ্দিন মুহাম্মদ আবু আলী হায়দার সাবের জমিদার ছিলেন, তিনি পুরুষতান্ত্রিক চরিত্রের ব্যতিক্রম

Read more... View: 1971 Leave Comment (1)


ফরিদা আখতার


Monday 04 July 2016

ঈদের বাজার এখন রমরমা। রমজান মাসের রোজার শেষে ঈদ আসবে— তারই প্রস্তুতি চলে সারা মাস ধরে। মাসজুড়ে কাপড় এবং সঙ্গে অন্য সামগ্রীর কেনাকাটাতেই আনন্দ। এ কেনাকাটায় অনেক দুর্ভোগ পোহাতে হয়, আর এখন তো যানজট বাড়তি ভোগান্তির সৃষ্টি করে। তবুও কারো কেনাকাটা থেমে থেকেছে বলে শুনিনি। সেটা গুলিস্তান বা ফার্মগেটের ফুটপাতের বাজার হোক বা বড় বড় শপিং মলের বাজার হোক। এবার রমজান মাস মোটামুটিভাবে গরমে কেটেছে। তাই শপিং মলে ভিড় একটু বেশি, কারণ সেখানে এসি চলে। দাম বেশি হলেও আরামে কাপড় কেনা যায়। এখন আষাঢ় মাস চলছে, কিন্তু বৃষ্টির চেহারা তেমন দেখা যাচ্ছে না। ওদিকে নীল শাড়ি ও পাঞ্জাবি পরে বর্ষার গানও গাওয়া হয়ে যাচ্ছে। ফুল ফুটুক বা না ফুটুক বসন্ত ঠিকই আসবে, এখন দেখছি ব

Read more... View: 1760 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Sunday 19 June 2016

নয়াকৃষি আন্দোলনের কৃষকরা অধিকাংশই ক্ষুদ্র কৃষক। তাদের জমির পরিমান ১ একরের বেশী নয়, সারা বাংলাদেশেই এই ক্ষুদ্র কৃষকরাই কৃষিতে মূল ভুমিকা রাখছেন। তাদের ফসল পরিকল্পনায় নিজের পরিবারের খাদ্যের যোগান দেয়াই প্রধান উপলক্ষ, বাজারের জন্যও তাদের উৎপাদন করতে হয়। কিন্তু বাজার তাদের উৎপাদনের ধরণ পালটে দেয়। বাজারের চাহিদা অনুযায়ি উৎপাদন করতে গিয়ে কৃষকের ফসলের বৈচিত্র্য কমে যায়, আর নিজেরা খাওয়ার জন্যে আবাদি জমির কম অংশ ব্যবহার করেও বাড়ীর ফসলের বৈচিত্র্য দেখে অবাক হতে হয়। ঈশ্বরদীতে নয়াকৃষি বিদ্যাঘর আরশিনগরে জৈষ্ঠ্য মাসের ৩০ তারিখ থেকে আষাঢ়ের ১ তারিখ (১৩ থেকে ১৫ জুন, ২০১৬) পাঁচটি এলাকার কৃষকের সাথে ফসল পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। এই সভায় অনেক গুরুত্বপুর্

Read more... View: 1971 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Monday 30 May 2016

সিগারেট, বিড়ি, জর্দার প্যাকেটে আকর্ষণীয় ছবি এবং কোম্পানি তার নিজের বিশেষ রং ব্যবহার করে ক্রেতাকে তার পণ্যের জন্যে ধরে রাখতে চায়। তাদের ইচ্ছা শুধু তামাক সেবনেই নয়, সেই বিশেষ কোম্পানির তৈরি করা ব্রান্ড ব্যবহারে। যারা সিগারেট খায় তারা কোন বিশেষ ব্রান্ডের সিগারেট খায় তা দিয়ে তার সামাজিক অবস্থানও বোঝাতে চায়। তাই ব্রান্ড, রং চিনে সিগারেট বা জর্দা ব্যবহার করে জোর গলায় বলবে সে কি ব্রান্ড খায়।

তামাক সেবন জনস্বাস্থ্যের জন্যের ক্ষতিকর এবং অকাল মৃত্যুর অন্যতম প্রধান কারণ বলে যখন থেকে স্বীকৃতি পেল তখন থেকে এর ব্যবহার কমাবার উদ্যোগ নেয়া হোল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে। মে মাসের ৩১ তারিখ আন্তর্জাতিক তামাকমুক্ত দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে ১৯৮৭

Read more... View: 1462 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Sunday 15 May 2016

দুটি বিষয়ে আশা করি কেউ দ্বিমত করবেন না। এক. স্বাস্থ্যসেবার যে ব্যবস্থা দেশে বিরাজমান, তা জনগণেরই পয়সায় চলে এবং এখান থেকে স্বাস্থ্যসেবা পাওয়ার তার পূর্ণ অধিকার রয়েছে। দুই. তামাক সেবন ও উত্পাদন জনস্বাস্থ্যের জন্য হুমকি। আরো বিষয় স্বাস্থ্যসেবা সংক্রান্ত সেবা আলোচনায় আসতে পারে। তবে এখন যেসব দাবি উঠছে, তার মধ্যে তামাকের উদাহরণ ইচ্ছে করেই টানছি। তামাক সেবনের কারণে সৃষ্ট রোগে বছরে প্রায় এক লাখ মানুষ ‘অকাল’ মৃত্যুবরণ করে। আরো ৩ লাখ মানুষ নানা রোগের কারণে ধুঁকে ধুঁকে মরে বা পঙ্গুত্ব বরণ করে। অকালমৃত্যুর অর্থ হচ্ছে— একটি পরিবারের উপার্জনক্ষম কিংবা যিনি দেশের জন্যও অবদান রাখতে পারতেন, তাকে হারানো। বাংলাদেশে যে পরিসংখ্যান আমরা দেখছি,

Read more... View: 1179 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Saturday 30 April 2016

মে দিবসে (বা পহেলা মে) শ্রমিকের কী অধিকার নিয়ে সংগ্রাম করতে হবে তা হয়তো বেশির ভাগ শ্রমিক ও অনানুষ্ঠানিক খাতের শ্রমজীবী মানুষ জানেন না। পহেলা মে পালনের বিষয়টি ট্রেড ইউনিয়ন আয়োজিত অনুষ্ঠানে বেশি প্রকাশিত হয়, অথচ ট্রেড ইউনিয়নের সদস্যভুক্ত শ্রমিকের সংখ্যা কারখানার বাইরে খুব একটা নেই। কারখানার ভেতরেও ৩০ শতাংশ হবে না। কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, মোট শ্রমিকের ৩ শতাংশ ট্রেড ইউনিয়নের সদস্য। তাহলে শ্রমিক ও শ্রমজীবী মানুষ নিজেই কি জানেন, তাদের অধিকার কী? পহেলা মে কেন সরকারি ছুটির দিন? কী দাবি তোলা দরকার? আমার বিশ্বাস অনেকেই জানেন না, তবে ক্যালেন্ডারে লাল রঙে ছুটির দিন হিসেবে শুক্র, শনি ও রোববার— তিনদিন বেশ ভালোই হচ্ছে। কারণ এবার মে মাস শুরু হচ্ছে র

Read more... View: 1648 Leave Comment (0)


উবিনীগ


Wednesday 27 April 2016

স্বাস্থ্য সেবা উন্নয়ন ও জনগণের স্বাস্থ্য সেবা পাওয়ার অধিকার আছে কি নেই তা জাতীয় বাজেটে বরাদ্দের পরিমাণ মেপে বলা যায় না। স্বাস্থ্য আন্দোলন এই বিষয়টি অর্থ বরাদ্দের পরিমাণের উর্ধ্বে চিন্তা করে। জনগণের স্বাস্থ্য সেবা পাওয়ার অধিকার তা নিশ্চিত করার জন্যে সরকারের যে অঙ্গীকার ও বাধ্যবাধকতা রয়েছে তা পুরণ করা হচ্ছে কিনা সেটাই মুল বিষয়। আমরা এখন বিশ্ব অর্থনীতির যে পর্যায়ে আছি তাতে জনগণের স্বাস্থ্য সেবা দেয়ার দায়িত্ব থেকে সরকার মুক্তি পেতে চাইছে। স্বল্প আয়ের দেশ থেকে নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশ হয়ে সরকারের দায়দায়িত্ব আরও সংকুচিত হয়ে যাচ্ছে। তারা অবাধ দরজা খুলে দিয়েছে বে-সরকারি খাত থেকে সেবা নেয়ার ওপর। যার সোজা অর্থ হচ্ছে “টাকা থাকলে সেবা পাবে, না থাকলে

Read more... View: 1478 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Thursday 07 April 2016

ডায়াবেটিস কোনো অপরিচিত রোগ নয়। চা পরিবেশন করতে গেলেই টের পাওয়া যায় কার ডায়াবেটিস আছে আর কার নেই। আজকাল জিজ্ঞেস করার নিয়ম হয়েছে, ‘চিনি দেব?’ রাজধানী শহর ঢাকায় সকালে রমনা পার্ক, চন্দ্রিমা উদ্যান, মধ্য ও উচ্চবিত্তদের আবাসিক এলাকা যেমন— গুলশান, ধানমন্ডির ফুটপাতে হন হন করে হাঁটতে দেখা যায় বিভিন্ন বয়সের নারী ও পুরুষকে। একেবারে যারা তরুণ, তাদের দেখা না গেলেও চল্লিশোর্ধ্ব অনেককেই এভাবে হাঁটতে হয় চিকিত্সকের প্রেসক্রিপশনে। এটা শহরের চিত্র, কারণ এ রোগ নিয়ে আলোচনা বা চিকিত্সা প্রথম শহর থেকেই শুরু হয়েছে। এ ধরনের রোগকে আমরা শহুরে ও বিত্তবানদের রোগ বলেই এতকাল জেনেছি। গ্রামে কি তাহলে ডায়াবেটিস নেই? অবশ্যই আছে। কিন্তু তা জানা যাচ্ছে না সম

Read more... View: 1459 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Friday 11 March 2016

বরাবরের মতো এবারও আন্তর্জাতিক নারী দিবস ৮ মার্চ উদযাপিত হয়েছে। আজকাল দেখা যায়, ৮ তারিখ পর্যন্ত অপেক্ষা করা হয় না, মার্চের শুরু থেকেই নারী দিবসের কর্মসূচি লেগে থাকে, কারণ দিবসটিতে যানজটের মতোই ‘কর্মসূচি-জট’ লেগে যায়। কোনটা ছেড়ে কোনটায় যাই, শেষ পর্যন্ত কোনোটাতেই যাওয়া হয় না। কাজেই এখন আর দিবস নয়, সপ্তাহ পালন করা হয় বলা যেতে পারে। সংবাদ মাধ্যমে নারীদের সম্পর্কে এবং তাদের অবস্থান জানা ও বোঝার চেষ্টা দেখা যায়। লেখালেখি হয়, বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। আমি এ প্রবণতা ইতিবাচক বলে মনে করি। দিনটি আছে বলেই বছরে একবার হলেও যার যার মতো করে বিশ্লেষণ করা হয়— নারী এগোতে পারল কি পারল না।

তবুও প্রশ্ন থেকে যায়, কারা দিবসটি পালন করছ

Read more... View: 2064 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Sunday 28 February 2016

আমরা জানি না, অর্থনীতির আসলে কয়টি পা রয়েছে। তবে সবকিছুর পেছনে দুই পায়ের মানুষ নামক জীবের জন্যই অর্থনীতির সবকিছু আয়-ব্যয় করা হয় এবং তাদের ‘উন্নয়ন’ করাই দেশের লক্ষ্যে পরিণত হয়। এজন্য এক বিরাট সংখ্যক দুই পা-বিশিষ্ট মানুষ নামক প্রাণী হাড়ভাঙ্গা খাটুনি খাটে, অন্যদিকে মানুষ নামক ক্ষুদ্র বিশিষ্ট অংশ দেশের অর্থনীতির মূল মাখনটি খেতে পারে। এ পরিস্থিতির ব্যাখ্যা অর্থনীতির ভাষায় ধনী-গরিব ব্যবধানের চিত্র হিসেবে দেখানো হয়। বিশ্বের অন্য সব দেশের মতো এই অন্যায় -- মানুষের অর্থনৈতিক অবস্থার বিভাজন--  বাংলাদেশেও রয়েছে। উন্নয়নের অনেক অগ্রগতি হচ্ছে ঠিকই, কিন্তু অর্থনৈতিক অবস্থায় নিচের দিকে যারা আছেন, অর্থাৎ গরিবদের আয় ১ দশমিক ২ থেকে কমে শূন্য দ

Read more... View: 2813 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Monday 22 February 2016

শ্রমিক হিসেবে নারী স্বীকৃত কিনা, তার মজুরী বৈষম্য কেন ঘটছে, বা মুল অর্থনীতিতে নারীর ভুমিকা কি সেটা বারে বারে প্রশ্ন ওঠে, কিন্তু কোন সুরাহা হয় না। কিছুটা পাওনা আদায় করা গেলেও পুরুষ শ্রমিকের সমান বা আন্তর্জাতিক মানের কোন কাঠামোতে নারীকে ধরা হয় না। অথচ নারী সবসময়ই শ্রমজীবী, সেটা বাড়ীর ভেতরে হোক বা বাইরে। নারী জন্মের পর থেকে বুঝতে শেখার অংশ হিসেবে তাকে কম পক্ষে গৃহস্থালি কাজ শিখে রাখতে হয়। নইলে তার যে মূল ঠিকানা, অর্থাৎ শ্বশুর বাড়ী সেখানে ঠাঁই হবে না। সেটাই তার কর্মস্থল। নারী তাই কখনো বেকার নয়। যদিও সে বলে আমি কিছু করি না, সংসার দেখি যেন এটা কাজ নয়। এগুলো পুরণো প্রসংগ, তবুও নারী শ্রমিককে যখন পথে ঘাটে দেখি এবং তার অধিকার প্রতিষ্ঠিত না হবার যে য

Read more... View: 3223 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Wednesday 10 February 2016

বাংলাদেশের সাধারণ মানুষ বলতে তাদের সংখ্যায় পরিণত করার প্রবণতা দেখা যায় উন্নয়ন নিয়ে কথাবার্তায়। কত মানুষ গরিব, কত মানুষ কাজ করছে, কত মানুষ বেকার ইত্যাদি। এ আলোচনার একটি দিক দীর্ঘদিন ধরে চলে আসছে, তা হচ্ছে, জনসংখ্যা বৃদ্ধি নিয়ে অন্তর্জাতিক মহলে উৎকণ্ঠা। বাংলাদেশ মানে হলো ছোট দেশ; কিন্তু মানুষের সংখ্যা বেশি।

এখানে উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করা কঠিন কাজ। আসলে দেশের জনসংখ্যা কত, তাও হয়তো অনেকেই ঠিকমতো নিরূপণ করে বলেন না। ১৬ কোটি মানুষের দেশ বলতে বলতে মুখে ফেনা উঠে যায়; কিন্তু জনশুমারিতে দেখা যায়, ১৫ কোটির একটু বেশি। মন্ত্রীরা তাদের বক্তৃতায় একেক সময় একেক সংখ্যা বলেন। গ্যাস দিতে না পারলে বলেন, ১৬ কোটি মানুষের জন্য গ্যাসের জোগান দেয়া সম্ভব

Read more... View: 1615 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Tuesday 26 January 2016

ঘটনা খুবই দুঃখজনক, কিন্তু হঠাত্ ঘটেছে কিংবা একটি মাত্র ঘটনা, তা কিন্তু নয়। সরকারি ও প্রাইভেট হাসপাতালে বা ক্লিনিকে এমন ঘটনা প্রায়ই ঘটছে। পত্রিকায় খবর প্রকাশিত হলে আমরা জানতে পারছি, আর না হলে স্বজনরা কেঁদে মরছেন। কেউ জানতে পারছে না। তাত্ক্ষণিক ক্ষোভ প্রকাশ করতে গিয়ে কোথাও কোথাও ভাংচুর হয়েছে, চিকিৎসকের ওপর আক্রমণও হয়েছে। এগুলো কাম্য নয়। কিন্তু যার স্বজন মারা যায় এবং তার যদি মনে হয় চিকিত্সায় গাফিলতি হয়েছে, এ মৃত্যু ঠেকানো যেত, তাহলে এটুকু অবশ্যই বলা যায়— এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি যেন না ঘটে, তার ব্যবস্থার দায়িত্ব কাউকে না কাউকে নিতেই হবে।

এ বছরের শুরুতে সরকারেরই উচ্চপর্যায়ের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট একটি পরিবার এমন এক ঘটনার করুণ শিকার হয়েছে।

Read more... View: 2209 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Saturday 23 January 2016

 অর্থনীতির অবস্থা বুঝতে গিয়ে উন্নয়নশীল দেশে দারিদ্র্যের হার বেড়েছে বা কমেছে কিনা তা নিয়ে অনেক মাথা ঘামানো হয়। অর্থনীতিবিদরা নানা তত্ত্ব দেন। রাজনৈতিক সরকার পরিসংখ্যানে দারিদ্র্যের হার একটু কম দেখাতে পারলে উল্লসিত হয়ে ওঠে। আর জিডিপি বৃদ্ধি পেলে তো কথা-ই নাই। বাহ্! অনেক উন্নতি হয়েছে। এখন গণতন্ত্রের দরকার নেই। এটা আমাদেরই কৃতিত্ব। আমাদের আগে যারা ছিল, তারা কিছু করেনি ইত্যাদি ইত্যাদি।

অথচ উন্নয়ন বা দারিদ্র্যবিমোচনের একটি ধারাবাহিক প্রক্রিয়া থাকে এবং জনগণও কারও মুখের দিকে চেয়ে বসে থাকে না। কাজেই দেশের অর্থনৈতিক পরিস্থিতির পরিবর্তন হতে থাকে। কিন্তু অর্থনীতির অংক অর্থনৈতিক অবস্থা বোঝার ভাল কোন মানদণ্ড নয়। যদি এমন একটি ব্যবস্থা টিকিয়ে

Read more... View: 2851 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Sunday 06 December 2015

বেগম রোকেয়া সাখাওয়াত হোসেন (১৮৮০-১৯৩২) বাংলাদেশের শুধু নন, পুরো দক্ষীণ এশিয়ায় উল্লেখ করার মতো একজন নারী মুক্তি দার্শনিক ও পথ প্রদর্শক। প্রায় শত বছর আগে তিনি যা লিখেছেন এবং করেছেন আজকের দিনেও অনেকে সেভাবে ভবিষ্যত কল্পনা করে ভাবতে পারেন না, কাজ করতে পারেন না। এটা আমি হলপ করে বলতে পারি। বেগম রোকেয়াকে নারী শিক্ষায় অবদান রাখার জন্যে বেশী উল্লেখ করা হয়, কিন্তু রোকেয়া রচনাবলী পড়লে তার চিন্তার ব্যাপকতা বোঝা যায়। কি কি বিষয় নিয়ে না ভেবেছেন তিনি! আরও যেটা বোঝা দরকার সেটা হচ্ছে তাঁর চিন্তা ও কাজ একত্রে ছিল। তিনি শুধু লিখে বসে না থেকে যতোটুকু পেরেছেন স্কুল চালিয়েছেন, নারীদের কর্মসংস্থানের চিন্তা করেছেন। নিরাশ্রীতাদের আশ্রয় দিয়েছেন। আবার সম্ভাবনার দ্বা

Read more... View: 2566 Leave Comment (2)


ফরিদা আখতার


Tuesday 01 December 2015

বিশ্বের রাজনীতি, অর্থনীতি ও সমাজ উন্নয়নের মাপকাঠি হিসেবে নারীর কত উন্নতি হলো তা জানা শুধু আমাদের দেশের জন্যই নয়, বিশ্বের বড় বড় নীতিনির্ধারণী ফোরামের মাথাব্যথার কারণ হয়ে গেছে। নারীকে আর ঘরের চার দেয়ালের মধ্যে চিন্তা করার উপায় নেই। নারী এখন সব কিছুরই লক্ষ্য এবং উপায়। তাই আন্তর্জাতিক ফোরামে আজকাল নারীর কথা উঠে আসে বারবার।

সম্প্রতি নারী উন্নয়ন সংক্রান্ত দুইটি বিপরীতধর্মী তথ্য দেখে চিন্তিত হচ্ছি। একটি 'ভালো' খবর- দ্য ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের পর্যালোচনায় নারী-পুরুষের ব্যবধান কমিয়ে আনার ক্ষেত্রে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে বাংলাদেশ। বিশ্বের ১৪৫টি দেশের নারীর পরিস্থিতি নিয়ে করা এ সূচকে চার ধাপ এগিয়ে বাংলাদেশ ৬৪ নম্বরে। এর আগে

Read more... View: 2001 Leave Comment (0)


ড. এম. এ. সোবহান ও গোলাম রাব্বী বাদল


Tuesday 01 December 2015

আধুনিক কৃষির বিষাক্ত ছোবলে উৎপাদন ব্যবস্থা ধ্বংসের দারপ্রান্তে পৌছেছে। রাসায়নিক কৃষি প্রসারের ধারায় সিনথেটিক সার ও বালাই নাশকের ব্যাপক ব্যবহারের ফলে ভূগর্ভস্থ পানির স্তর যেমন-বিষাক্ত হচ্ছে তেমনই এককাট্টা ফসলের আবাদের ফলেও প্রাণবৈচিত্র্য ধ্বংস হচ্ছে। ধ্বংসাত্মক এ ব্যবস্থা অবিরাম ধারায় চলতে থাকলে কৃষি ব্যবস্থায় ধস নামবে। মাটির গুণাগুণ হারিয়ে যাবে। নিস্প্রাণ শিলায় পরিণত হবে। যেমনটি সৃষ্টির আদিতে গাছপালা ও প্রাণীর আবির্ভাবের পূর্বে ছিল।

আধুনিক কৃষি ব্যবস্থায় উৎপাদন খরচ ক্রমশঃ বেড়েই চলছে। অথচ রাজনৈতিক কৌশলের অংশ হিসাবে কৃষি তথা ভোগ্য পণ্যের বাজার দর কমানোর জন্য রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে প্রতিযোগিতা চলছে। ফলে যা হবার তাই হচ্ছে। একদিকে উপকরণে

Read more... View: 2934 Leave Comment (0)


ড. এম.এ সোবহান


Tuesday 01 December 2015

ইংরেজি দৈনিক দি ডেইলি ষ্টার এর ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৫ সংখ্যায় ইনোভেটিভ রাইস ফার্মিং ইন দি নর্থ (উত্তর অঞ্চলে নব প্রবর্তিত ধানের আবাদ) শিরোনামে একটি সংবাদ ছাপা হয়। এ সংবাদের শুরুতে লেখা হয় ২০১৪ সালে বাংলাদেশের উত্তর অঞ্চলে নীচু এলাকায় বসবাসরত জনগণ এক ভয়াবহ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ হয়। ঐতিহ্যগতভাবে প্রচলিত ধানের জাতগুলি ১৫ দিন পানির তলায় ডুবে থাকে। ফলে ফসল বিনষ্ট হয়।

এ খবরে প্রকাশিত বন্যার খবরটি সত্য তবে ঐতিহ্যগতভাবে প্রচলিত ধানের জাতগুলি বিনষ্ট হওয়ার বিষয়টি বির্তক সৃষ্টি করেছে।

পানির উপর ভিত্তি করে স্মরণাতীতকাল থেকে এ অঞ্চলের মানুষের জীবন জীবিকা বিকশিত হয়েছে। বাংলাদেশের ২০% জমি স্বাভাবিক অবস্থায় বর্ষা মৌসুমে প্লাবিত হয়। আবার বড় বন্যা য

Read more... View: 2165 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Saturday 28 November 2015

খাদ্যফসলে জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ব্যবহার সম্পর্কে পক্ষে-বিপক্ষে মতামত বিজ্ঞানীদের তর্কের বাইরে সামাজিক পর্যায়েও চলে এসেছে। জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের সংক্ষেপ নাম জিএমও বললে এখন অনেকেই বুঝতে পারেন। এবং বুঝতে পেরে সবাই যে আস্থা পান তা নয়। জিএমও ছাড়াই তো এ দেশে কৃষিফসল উত্পাদন কম হয়নি। আধুনিক কৃষি মাধ্যমে উচ্চফলনশীল জাত আনা হয়েছে, এর পর এসেছে হাইব্রিড। এগুলো উত্পাদনের পরিসংখ্যানে অনেক টন যোগ করেছে। কিন্তু রাসায়নিক সার ও কীটনাশক ব্যবহারও নির্বিচারে বেড়েছে সেই টন ধরেই। তাই তো এখন আর খাদ্যনিরাপত্তা অর্জিত হয়েছে বলে থেমে থাকা যাচ্ছে না, প্রশ্ন উঠছে খাদ্য নিরাপদ কিনা। খাদ্য বেশি আছে ঠিকই, কিন্তু নিরাপদ নেই।

এ পরিস্থিতিতে জিএম ফসল কতখানি নিরাপ

Read more... View: 1698 Leave Comment (0)


উবিনীগ


Sunday 08 November 2015

বাংলাদেশের মতো উর্বর ও প্রাণবৈচিত্র্য সমৃদ্ধ একটি দেশে নির্দয়ভাবে জিএমও ফসল উৎপাদনের জন্যে বিদেশী কোম্পানিগুলো চেষ্টা করে যাচ্ছে কারণ একে একে বিভিন্ন দেশ তাদের মাটি এই জিএমও ফসলের জন্যে ব্যবহার করতে দেবে না। বিশ্ব এখন সে দিকেই যাচ্ছে। বাংলাদেশ যখন দ্রুত কৃষিতে একের পর এক জিএমও ফসলের প্রবর্তনের জন্য তাড়াহুড়ো করছে সে সময় ভারত বলছে তারা এ ব্যাপারে ভেবে চিনতে করবে, কোন তাড়া নেই। তারা বলছে জনগণের মধ্যে জিএমও ফসল নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। কাজেই বাণিজ্যিকভাবে চাষের অনুমোদন দেয়ার আগে ৮ থেকে ১০ বছর মাঠ পর্যায়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সফলতা যাচাই করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে [The Economic Times, 10 June, 2015]। স্কটল্যান্ড সরকার ইওরোপিয়ান ইউনিয়নের জিএম ভুট্টা ও ছয়ট

Read more... View: 2480 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Tuesday 27 October 2015

দেশের রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক অবস্থা হঠাৎ করেই যেন আবার অস্থির হয়ে উঠেছে। সবচেয়ে বেশি উদ্বিগ্ন হওয়ার বিষয় হচ্ছে নিরাপত্তা ঝুঁকি বেড়েছে, যার প্রভাব সরাসরি অর্থনীতির ওপর পড়ছে। কারণ এখন নিরাপত্তা ঝুঁকির সঙ্গে বিদেশিরাও সরাসরি জড়িয়ে গেছে। কিন্তু তার মানে এ নয় যে, দেশের মানুষ খুব নিরাপত্তা বোধ নিয়ে আছে। কাউকেই মনে হয় না ভবিষ্যতের অর্থনৈতিক পরিকল্পনা করতে। এসব নিয়ে এত কথা আর আলোচনা হচ্ছে যে, আমি আর কিছু বলতে চাই না। শুধু আশুরার মধ্যরাতে তাজিয়ার প্রস্তুতিতে যে হামলা ও হতাহতের ঘটনা ঘটেছে, তা আমার কাছে মর্মান্তিক মনে হয়েছে। কারবালা আমাদের এমন বাস্তবভাবে মনে করিয়ে দেবে কেউ- এটা ভাবতেই কষ্ট হয়।

সবচেয়ে বিরক্তিকর হচ্ছে এসব কিছুর সঙ্গে রাজনৈতিক দলগু

Read more... View: 2463 Leave Comment (0)



Sunday 11 October 2015

জেনিটিক্যালি মোডিফায়েড গোল্ডেন রাইস-এর পরীক্ষামূলক উৎপাদনে যাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা৷ ওদিকে দেশি জাতের ধান রক্ষায় যাঁরা কাজ করছেন তাঁদের দাবি, এই রাইসের মাধ্যমে বহুজাতিক কোম্পানি বাংলাদেশের ধান দখল করতে চান৷

দেশীয় ধানে বিটা ক্যারেটিন বা ভিটামিন এ নেই৷ অন্যদিকে জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং-এর মাধ্যমে আবিষ্কৃত গোল্ডেন রাইস-এ ভিটামিন এ পাওয়া যাবে৷ বাংলাদেশ রাইস রিচার্স ইনস্টিটিউটের (বিরি) বিজ্ঞানীদের দাবি, এই ধান শিশু এবং গর্ভবতী মায়েদের ভিটামিন এ-এর অভাব পূরণ করবে৷ শিশুদের রক্ষা করবে রাতকানা রোগ থেকে৷

কুষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী সংবাদমাধ্যকে জানান, বিরি-র অনুরোধে ন্যাশনাল টেকনিক্যাল কমিটি অন ক্রপ বায়োটেকনোলজি গত ২০শে সেপ্টেম্বর মাঠ পর্যায়ে পরীক্

Read more... View: 1693 Leave Comment (0)


সীমা দাস সীমু


Monday 17 August 2015

নয় বছরের স্মৃতি। ‘আমি যখন বড় হব, গাছও তখন বড় হবে’ আম গাছ লাগিয়ে এমনই তার ভাবনা।

গ্রামে কিশোরীদের বিয়ে হয় তাড়াতাড়ি। অল্প বয়সে। মেয়েদের বয়স ১২-১৩ হলেই মা-বাবা’রা বিয়ে দেবার জন্য চিন্তিত হয়। ফলে তারা লেখা-পড়া বেশী দূর করতে পারে না। এই বিয়ে দেবার যথেষ্ট কারণও আছে। গ্রামে কম বয়সে মেয়েদের বিয়ে হলে যৌতুক কম লাগে। মেয়ে বড় হয়ে গেলে যৌতুক বেশী লাগে। বাবা-মাদের পক্ষে সম্ভব হয় না বেশী যৌতুক দিয়ে মেয়ের বিয়ে দেবার। তাই নারীগ্রন্থ প্রবর্তনা বাল্যবিবাহ বা ১৮ বছরের পূর্বেই যাতে মেয়েদের বিয়ে না হয় তার জন্য কিশোরীদের মধ্যে গাছ লাগানোর কর্মসূচী হাতে নেয়। এখন গাছ লাগান হলে মেয়ে বড়

Read more... View: 3332 Leave Comment (1)


ফরিদা আখতার


Friday 14 August 2015

বাংলাদেশ যখন দ্রুত কৃষিতে একের পর এক জিএম ফসলের প্রবর্তনের জন্য তাড়াহুড়ো করছে, সে সময় ভারত বলছে, তারা এ ব্যাপারে ভেবে-চিন্তে এগোবে; কোনো তাড়া নেই। তারা বলছে, জনগণের মধ্যে জিএম ফসল নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। কাজেই বাণিজ্যিকভাবে চাষের অনুমোদন দেয়ার আগে আট-দশ বছর মাঠপর্যায়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সফলতা যাচাই করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে [দ্য ইকোনোমিক টাইমস, ১০ জুন ২০১৫]। স্কটল্যান্ড সরকার ইউরোপীয় ইউনিয়নের জিএম ভুট্টা ও ছয়টি জিএম ফসলের অনুমোদনের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে এবং পরিষ্কারভাবে বলছে, স্কটল্যান্ডের মানুষের কাছে জিএম খাদ্যের চাহিদা আছে এমন কোনো প্রমাণ নেই, বরং স্কটল্যান্ডের সুন্দর প্রাকৃতিক পরিবেশে জিএম ক্ষতিকর প্রভাব ফেলার আশঙ্কা রয়েছে, যা তাদের ১৪ বিল

Read more... View: 2158 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Tuesday 04 August 2015

পাহাড়ি ঢলে ডুবে যাওয়া কঙ্বাজারের একটি গ্রাম

দেশের উপকূলীয় অঞ্চলে জুন থেকে দফায় দফায় পাহাড়ি ঢলে বন্যা হয়েছে, বৃষ্টি থামার কোনো লক্ষণ নেই। একটু থামলেও রোদের দেখা সহজে মেলে না। দিনের পর দিন, রাতের পর রাত মানুষ ঘরের ভেতরে দুই থেকে তিন ফুট পানিতে বসে বসে কাটিয়েছে। সংযোগ থাকার পরও বিদ্যুৎবিহীন অবস্থায় কাটাতে হয়েছে। কক্সবাজার ও বান্দরবান এলাকার অবস্থা খুবই খারাপ। চকরিয়া উপজেলায় আমাদের সহকর্মীরা রয়েছেন বলে প্রতিদিন খবর পাচ্ছি। তাদের বর্ণনায় বোঝা যায়, এ বন্যা ভয়াবহ এবং অন্যবারের মতো নয়। একবার পানি নেমে গেলেও আবার কিছুদিন পর হচ্ছে। ভাসিয়ে নিয়ে যাচ্ছে গাছপালা, ঘরের আসবাবপত্র, মুরগি, এমনকি ১৩ দিনের এক নবজাতকও ভেসে গেছে। ঢাকার আকাশও খুব পরিষ্কার

Read more... View: 2722 Leave Comment (0)


রফিকুল হক টিটো


Saturday 01 August 2015

মাস না পেরোতেই আবার বন্যার শিকার হয়েছে কক্সবাজারের প্রায় ৫ লাখ মানুষ। গণমাধ্যমে এর মাত্রা এবং বন্যায় এলাকার মানুষের দুর্ভোগের খবর যথযোগ্য মনোযোগ পায় নি।  সরকারের নীতি নির্ধারনী পর্যায় জনগণের দুর্ভোগ লাঘবের জন্যও সাড়াও অপ্রতুল। এই পরিপ্রেক্ষিতে এলাকার কিছু এলাকা সরেজমিন ঘরে এই প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে।

উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তার আশপাশের বাংলাদেশের উপকুলীয় এলাকায় একটি  লঘু চাপ তৈরি হয়েছিল। সেটা দ্রুত ঘনীভূত হয়ে মৌসুমী নিম্ন চাপে পরিণত হয়। মৌসুমী নিম্ন চাপের প্রভাবে গত ২৪ জুলাই ২০১৫ শুক্রবার থেকে টানা ৪ দিন প্রবল বৃষ্টি ও মাতামুহুরী ও বাকখালী নদীতে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলের পানিতে জেলায় এই ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতি সুষ্টি হ

Read more... View: 3263 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Wednesday 17 June 2015

বিশাল অঙ্কের বাজেট (২ লাখ ৯৫ হাজার ১০০ কোটি টাকা) ঘোষণা হয়েছে ৪ জুন। পরদিন ছিল ৫ জুন, বিশ্ব পরিবেশ দিবস। তার পরের দিন আসবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদি। আগে-পরে বড় বড় ঘটনা থাকায় বিশ্ব পরিবেশ দিবসটি সরকারিভাবে ঠিকমতো পালন করা হলো না। তবুও ৫ জুন বিভিন্ন সংগঠন মোদির সফরের সময় ভারতের সঙ্গে সম্পর্কের মধ্যে যেসব পরিবেশ ধ্বংসকারী চুক্তি স্বাক্ষর হওয়ার কথা রয়েছে তার বিরুদ্ধে সভাসমাবেশ করেছে। তারা দাবি করেছে সুন্দরবন ধ্বংস করে রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র না করার জন্য। পরিবেশবাদীরা দাবি করেছিলেন দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের সিদ্ধান্ত স্থগিত করবেন। এটাই ছিল এবারের বিশ্ব পরিবেশ দিবসের মূল ঘটনা। কিন্তু সবার আশার গুড়ে বালি দিয়ে ২২টি

Read more... View: 1920 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Tuesday 09 June 2015

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বাংলাদেশে দুই-দিনের বা ৩৬ ঘন্টার সফরে এসে ব্যস্ত সময় কাটিয়ে গেছেন। জুন মাসের ৬ ও ৭ তারিখ তাঁর সফর নিয়ে সরকারের ব্যস্ততা ছিল লক্ষ্য করার মতো। ভাল করে পরিবেশ দিবস ও পালিত হয় নি। মাঝখানে আবার একটু খানি মমতা ব্যানার্জীও এসে ঘুরে গেছেন। তাঁকে স্বাগত জানাতে গিয়ে বাংলাদেশের নিজস্ব কায়দায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আর একদিন থেকে যাবার অনুরোধ করেছিলেন। কিন্তু তিনি তাঁর কাজ সেরে চলে গেছেন। অনুরোধ রক্ষা করেন নি। মোদীর সফরের সাথে তাঁর আসাটা বাংলাদেশের সফর সুচিতে কতটুকু খাপ খেয়েছে তা অনেকেই ভেবে পাচ্ছেন না, আমিও না।

দিত্বীয় দিনে সারাদিনের কাজ শেষে যাবার আগে, মোদী দীর্ঘ বক্তৃতা দিয়েছেন বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেল

Read more... View: 3130 Leave Comment (0)


ড. এম. এ সোবহান


Monday 08 June 2015

গত বছরের তুলনায় এ অর্থবছরে (২০১৪-১৫) ১ জুলাই, ২০১৪ থেকে ৬ মে, ২০১৫ পর্যন্ত সময় চাল আমদানি তিনগুণ বেড়েছে। এ সময় বেসরকারী ভাবে ১৩ লক্ষ মেট্রিক টন চাল আমদানি হয়েছে। শুল্ক মুক্ত হওয়ায় ব্যবসায়ীরা ভারত থেকে চাল আমদানির আনন্দ উপভোগ করেছেন। স্থানীয় উৎপাদনে নিজস্ব চাহিদা পূরণের সুযোগ থাকা সত্ত্বেও আমদানি করা চালে বাজার সয়লাব হয়েছে।

পর পর গত কয়েক বছর বোরো এবং আমন ফসল ভাল হওয়া সত্ত্বেও ভারত থেকে শুল্কমুক্ত চাল আমদানি করার ফলে অনেক মিল মালিকের গত বছরের চাল এখনও অবিক্রিত রয়েছে। এ অবস্থায় মিল মালিকরা সরকারকে চাল আমদানি না করার জন্য দাবি জানিয়ে আসছেন। তবে উচ্চ পর্যায়ের কিছু সরকারী কর্মকর্তারা যুক্তি দেখিয়েছেন যে আমদানি করা নিম্ন মানের চাল পশু খা

Read more... View: 2003 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Sunday 17 May 2015

শিশুকাল বা বাল্যকাল বলে একটি কথা আছে যা আমাদের সবার জীবনের স্মৃতির একটি বড় অংশ জুড়ে থাকে। যতোই বয়স বাড়ুক না কেন সকলেরই বাল্যকালের স্মৃতি থেকে তার পুরো মনস্তত্ত্ব বোঝা যায়। শিশু কোন ধরনের পারিবারিক ও সামাজিক পরিবেশে বড় হয়ে উঠেছে তার পরিচয় পাওয়া যায় তার শিশুকালের বেড়ে ওঠা কেমন ছিল তা জেনে। তার মনস্তত্ত্ব নির্ণয় করা কঠিন হয় না।

আগের যুগে শিশুকালের বেড়ে ওঠা এবং তার মনস্তত্ত্ব গড়ে ওঠার সাথে সরাসরি মা-বাবা, ভাই বোন ছাড়াও চাচা-চাচী, খালা-মামা, নানী-দাদী, নানা-দাদার প্রভাব ছিল কোন না কোন ভাবে। ভাগ্য ভাল হলে শিশু দাদা-নানার আদর ও শাসনে বড় হতে পারে, ভাগ্য ভাল হলে ছোট মেয়েটি তার দাদী বা নানীর লুকায়িত জ্ঞানের সাথে পরিচিত হয়ে এই জ্ঞানের ধারাবাহি

Read more... View: 3585 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Wednesday 06 May 2015

খাদ্য সংকট, পরিবেশ ও মানুষের স্বাস্থ্যের ক্ষতি রোধে তামাক চাষ নিয়ন্ত্রণ

তামাক কোন খাদ্য ফসল নয়, এমনকি কৃষি ফসলের পর্যায়েও পড়ে না। প্রয়োজনীয় কোন শিল্পের কাঁচামালও নয়। তামাক চাষ করা হয় পাতা উৎপাদন করার জন্যে যে পাতায় নিকোটিন থাকে বলে এই পাতা দিয়ে বিভিন্ন মানের ও ব্রান্ডের সিগারেট তৈরী করা হয়, বিড়ি ও জর্দা-গুল তৈরি করা হয়। বিশ্বব্যাপী এখন সচেতনতা বৃদ্ধ্বি এমন পর্যায়ে এসেছে যে ধূমপান ও ধোঁয়াবিহীন তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর এবং অনেক অসংক্রামক রোগ (NCD) যেমন হার্ট এটাক, হাই-ব্লাড প্রেসার, শ্বাস কষ্ট জনিত রোগ, ডায়াবেটিস ও অন্ত্রনালীর রোগের জন্যে দায়ী। সারা বিশ্বে প

Read more... View: 3381 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Wednesday 29 April 2015

নেপালের সাম্প্রতিক ভূমিকম্প থেকে অনেক কিছু শেখার আছে আমাদের

প্রকৃতি বাংলাদেশকে যথেষ্ট সতর্কবাণী দিয়েছে- ভূমিকম্প হতে পারে, শিগগিরই বড় আকারেই আসতে পারে। কারণ নেপালের পর উৎপত্তিস্থল ক্রমেই বাংলাদেশের দিকে এগিয়ে আসছে। নেপালের ভূমিকম্পে মৃতের সংখ্যা ৪ হাজার ছাড়িয়েছে; আহতের সংখ্যা কত তা বলে শেষ করা যাচ্ছে না। এসব দেখেও যেন আমাদের কোনো টনক নড়ছে না। নেপালের প্রেসিডেন্ট নিজেও রাত কাটাচ্ছেন তাঁবুতে। কারণ তার ঘরেও ফাটল ধরেছে। আমরা ব্যস্ত রয়েছি, সিটি করপোরেশন নির্বাচন নিয়ে। ভূমিকম্পের বিষয়ে বাংলাদেশে আমরা সরকারের পক্ষ থেকে প্রস্তুতিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার কোনো উদ্যোগ দেখছি না। প্রস্তুতি নিয়ে রাখলে ভূমিকম্প না হলেইবা অসুবিধা কী? আমাদের প্রস্তুতি থা

Read more... View: 1826 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Monday 13 April 2015

চৈত্র মাস কেটে গেল গরম ছাড়াই। শীতের পর ফাল্গুন পার হয়ে চৈত্র মাস; চৈত্র মাসে আবহাওয়া গরম হয়ে ওঠার সুযোগ থাকে এবং বেশ গরম লাগার কথা। কিন্তু এবারের চৈত্র ছিল একটু ব্যতিক্রম। বেশ কয়েক বার বৃষ্টি হয়েছে এবং বৈশাখ আসার আগেই বৈশাখী ঝড় আমরা দেখেছি। হয়তো একে জলবায়ু পরিবর্তন বলা যেতে পারে। যদি তাই হয় তাহলে আমাদের প্রকৃতিতে মৌসুম অনুযায়ী তাপমাত্রা ও আদ্রতা নিয়ে যেসব ফসল ও গাছ-পালা জন্মাবার কথা তারও পরিবর্তন হচ্ছে।

চৈত্র মাস শেষ হচ্ছে, ৩০ দিনে। চৈত্রের শেষ দিনের  মধ্য দিয়ে ১৪২১ বাংলা বছরের সমাপ্তি ঘটবে। কিন্তু চৈত্র সংক্রান্তি পালনের বিষয়টি বছর শেষ ঘোষণার জন্যে নয়, দিনটি পালন হবে মানুষের শরীর ও প্রকৃতির মধ্যে একটি যোগ সুত্র ঘটাবার জন্য। প্

Read more... View: 2546 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Sunday 12 April 2015

জাতিসংঘের বেশ ক'টি গুরুত্বপূর্ণ সংস্থা রয়েছে, যারা নিজ নিজ কাজ স্বতন্ত্রভাবেই করে। এটা অনেকটা আমাদের দেশের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কাজের মতোই। সবকিছুই জনগণের জন্য করা; কিন্তু যার যার কাজ সে করে যাচ্ছে নিজের মতো করে। কারও সঙ্গে কারও কাজের সমন্বয় নেই। জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থার একেকটি বিভাগ তেমনই নির্দিষ্ট দায়িত্বের বাইরে খুব বেশি কাজ করে না। কেউ শান্তি রক্ষা করছে, কেউ উন্নয়ন করছে, কেউ শিশুদের রক্ষা করছে, কেউ মাতৃ স্বাস্থ্য রক্ষার চেষ্টা করছে ইত্যাদি। কিন্তু সবই যে ঘুরেফিরে এক জায়গার, একই পরিবার বা গোষ্ঠীর ব্যাপার হতে পারে, তা বোধহয় ভেবে দেখা হয় না। দেশে মানবাধিকার ক্ষুণ্ন হলে কথা বলে, কিন্তু সরকার সে কথায় কান না দিলে ভদ্র মানুষের মতো চুপ হয়ে যা

Read more... View: 2076 Leave Comment (1)


ফরিদা আখতার


Friday 03 April 2015

তিনটি সিটি কর্পোরেশানের নির্বাচনের তফসীল ঘোষনা করেছেন নির্বাচন কমিশন। এর মধ্যে দুটি ঢাকায় – উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন আর একটি হচ্ছে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন। কাজেই খবরে আলাপ-আলোচনায় নির্বাচন, প্রার্থী মনোনয়ন ইত্যাদি চলে এসেছে। জানুয়ারি মাস থেকে আন্দোলন শুরু হয়েছে, তা এখনো শেষ হয় নি। এই আন্দোলনের দাবী হচ্ছে একটি নির্দলীয় নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচনের জন্যে। সেটার জন্যে ২০১৯ সাল পর্যন্ত অপেক্ষা নয়, এরই মধ্যে করতে হবে কারণ এখন সরকারের গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নানা প্রশ্ন রয়েছে। সরকার নির্বাচন এক্ষুণি না দিলেও অন্তঃত একটি সংলাপ করার জন্যে শুধু বিশ দলীয় জোট নয়, দেশের মধ্যে নানা ভাবে সুশিল সম

Read more... View: 2324 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Tuesday 24 March 2015

চলছে তামাক পাতার চাষ

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা আয়োজিত আবুধাবিতে ১৭ থেকে ২১ মার্চ অনুষ্ঠিত হলো ১৬তম 'তামাক নাকি স্বাস্থ্য' সম্মেলন। অসংক্রামক ব্যাধি (Non-Communicable Disease, NCD) এর আলোকে এ সম্মেলনে ব্যাপক আলোচনা হয়েছে। অনেক বড় সম্মেলন, প্রায় ১০০ দেশ থেকে ২ হাজার ১৮৪ জন অংশগ্রহণ করেছেন; কিন্তু আগে যারা অন্যান্য সম্মেলনে গেছেন তাদের এখানে অংশগ্রহণ আশানুরূপ ছিল না, বরং ছিল হতাশাব্যাঞ্জক। এ সম্মেলন আবুধাবিতে হওয়ার কারণে ভিসার সমস্যা ছিল বাংলাদেশসহ অনেক দেশের। বাংলাদেশ থেকে মাত্র আটজন যেতে পেরেছেন, যেখানে অন্তত ৩০ জন টিকিট কেটে হোটেল বুকিং দিয়ে এবং তাদের নিজ নিজ কাজ সম্পর্কে প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছিলেন।

Read more... View: 2059 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Sunday 15 March 2015

খুব বেশী দিন আগের কথা নয়। দেশে যখন সহিংসতার শিকার নানা ধরণের ‘রোগী’ নিয়ে হাসপাতালগুলো ব্যস্ত ঠিক সে সময় সিলেটে এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নবজাতক ও ১০ শিশু সহ ৩২ জনের মৃত্যুর ঘটনা সকলকে চমকে দিয়েছে। নয় ফেব্রুয়ারি ২০১৫ তারিখে চব্বিশ ঘন্টায় এতোগুলো মৃত্যু একসাথে ঘটেছে এটা কোনমতেই স্বাভাবিক নয় বলেই বিবেচিত হয়েছে। স্বজনরা অভিযোগ করেছেন ভুল চিকিৎসা বা অবহেলায় এই মৃত্যু হয়েছে। অন্যদিকে কোন প্রকার খোঁজ খবর ছাড়াই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দাবি করেন,ঠান্ডা জনিত রোগে শিশুদের মৃত্যু হয়েছে। সে সময় শীত কাল ছিল, ঠান্ডা তো লাগতেই পারে। কিন্তু এই মৃত্যু তো বাড়িতে বসে ঘটেনি। ঠান্ডা লাগলেও যেখানে এসে চিকিৎসা পাওয়া যাবে তেমন জায়গাতেই এই রোগীরা ছ

Read more... View: 1745 Leave Comment (1)


নারীগ্রন্থ প্রবর্তনা


Saturday 07 March 2015

নারী দিবস ২০১৫: বাংলাদেশ ও ভারতের নারীদের যৌথ আহ্বান

আন্তর্জাতিক নারী দিবস, ৮ মার্চ, ২০১৫ উপলক্ষে প্রাণ, পরিবেশ, প্রাণ বৈচিত্র, খাদ্য ও পুষ্টি নিয়ে যে সকল নেতৃস্থানীয় নারী ও সংগঠন বাংলাদেশে ও ভারতে কাজ করছে তাঁরা একটি গুরুত্বপূর্ণ বিবৃতি দিয়েছেন। এদের মধ্যে রয়েছেন বন্দনা শিবা, ফরিদা আখতার, মীরা শিবা প্রমুখ। যেখানে বিশ্বব্যাপী প্রাণের ওপর দখলদারি চলছে এবং খাদ্য ব্যবস্থা অল্প কিছু কর্পোরেশানের হাতে চলে গিয়েছে সেই ক্ষেত্রে নারীর ক্ষমতায়ন অবশ্যই প্রাণের সুরক্ষা ও বৈচিত্র নিশ্চিত করার সঙ্গে সরাসরি যুক্ত হয়ে পড়েছে। যে ক্ষমতা ঐতিহ্যগত ভাবে নারীর ছিল তা চলে যাচ্ছে অল্পকিছু বহুজাতিক কম্পানির হাতে। একে অ

Read more... View: 3455 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Tuesday 10 February 2015

ফটোসাংবাদিক নাম দিয়ে অনেকেই বার্ন ইউনিটে ঢুকে যথেচ্ছ রোগীর ছবি তুলছে

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিট এখন রাজনীতির নিষ্ঠুরতার এক জ্বলন্ত প্রতীক। ৩৫ দিনের ২০ দলীয় জোটের ডাকা লাগাতার অবরোধ ও হরতালের মধ্যে নানা ঘটনার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে পেট্রলবোমায় পুড়ে মারা যাওয়া। প্রায় ৭০ জন মারা গেছে দেশের বিভিন্ন স্থানে, এখনও ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন রয়েছে ৬৩ জন, যাদের অনেকেরই অবস্থা আশঙ্কাজনক। তারা বাঁচলেও পঙ্গুত্বের শিকার হতে হবে। তাদের মধ্যে আছেন বাস, ট্রাকের ড্রাইভার, হেলপার এবং যাত্রীরা। অর্থাৎ যারা এ অবরোধে সড়ক পরিবহন ব্যবহার করেছেন তারাই আক্রান্ত হয়েছেন। অবরোধের সমর্থ

Read more... View: 2445 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Saturday 31 January 2015

দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি খুবই নাজুক। ব্যাপক জনগণের অংশগ্রহণ ছাড়া নির্বাচিত হয়ে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি থেকে ২০১৫ সালের ৫ জানুয়ারি পার করা গেছে বটে, তবে বিরোধী পক্ষ একটু নড়েচড়ে বসায় দেশে হরতাল, অবরোধ ইত্যাদি হচ্ছে। সরকার বিরোধী রাজনৈতিক দলের দাবিদাওয়া উপেক্ষা করে যখন এগিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছে এবং আনন্দের সঙ্গে বছর পূর্তি পালন করতে গেছে তখনই বিপত্তি লাগল। যদিও বিরোধী পক্ষের আন্দোলন ১০০ শতাংশ সফল হচ্ছে দাবি করা যাবে না, তবু অর্থনীতিকে পিছিয়ে দেয়া, বিশেষ করে কৃষকের ফসল বাজারে আসার ক্ষেত্রে বাধা সৃষ্টির জন্য যথেষ্ট। আর সময়মতো ফসল বাজারজাত করতে না পারলে কৃষকের ক্ষতি হয়— এ কথা সর্বজনবিদিত। অবশ্য ফসল বাজারজাত করতে না পারা শুধু রাজনৈতিক খারা

Read more... View: 2693 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Tuesday 20 January 2015

রাজনৈতিক অবস্থা যখন খুব গরম- হরতাল, অবরোধ, সহিংসতা ইত্যাদি নিয়ে যখন সবাই ব্যস্ত, তখন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত হঠাৎ ঘোষণা দিয়ে দিলেন, নতুন পাঁচ টাকার মুদ্রা বাজারে ছাড়া হবে। পুরনো এক ও দুই টাকার নোট এবং বাজার থেকে মুদ্রা তুলে নেয়া হবে। পাঁচ টাকার নোট হবে সর্বনিম্ন মুদ্রা! সচিবালয়ে ১৮ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত এক সভায় তিনি এ ঘোষণা দেন। বর্তমান নিয়ম অনুযায়ী, এক ও দুই টাকার মুদ্রা সরকারের, তাতে অর্থসচিবের সই থাকে এবং পাঁচ থেকে এক হাজার টাকার মুদ্রাগুলো কেন্দ্রীয় ব্যাংকের, যেখানে বাংলাদেশ ব্যাংক গভর্নরের সই থাকে। সব ধরনের টাকার প্রবাহ নিয়ন্ত্রণ করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এর অর্থ হচ্ছে, এক ও দুই টাকা সরকারি মুদ্রা হলেও তা তুলে নেয়ার ক্ষেত্রে সিদ্ধান্

Read more... View: 2730 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Tuesday 13 January 2015

গত বছর অনুষ্ঠিত নির্বাচন এবং সরকার গঠন সবার জন্য অস্বস্তিকর, খোদ সরকারের মধ্যেও এ বোধ আছে বলে আমার বিশ্বাস। এর আইনি বৈধতা নিয়ে কিছু বলার না থাকলেও গ্রহণযোগ্যতার প্রশ্ন বরাবরই ছিল, এবার আবার মাঠ গরম হয়ে উঠেছে। সারা দেশে অবরোধ চলছে, সঙ্গে চলছে কিছু কিছু জেলায় হরতাল। এবার ৫ জানুয়ারি, ২০১৫ তারিখ ছিল সেই প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচনের এক বছর পূর্তি। স্বাভাবিকভাবেই যারা নির্বাচনের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী দল বা জোট তাদের জন্য এ দিনটি ছিল ক্ষোভ প্রকাশের। তারা এক বছর চুপ করে থেকে দেখেছে সরকার কী করে। সরকারের পক্ষ থেকে মন্ত্রী ও নেতারা পুরো পাঁচ বছর পূরণ না করে 'কোনো কথাও বলবে না' এমন কড়া কড়া কথা ক্রমাগতভাবে বলে যাচ্ছে দেখে বোঝা গেল, তারা অগণতান্ত্রিক পদ্ধতিত

Read more... View: 1994 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Sunday 04 January 2015

হঠাৎ করে কেউ নাই হয়ে যেতে পারে, এই কথা বিশ্বাস করা আমার জন্যে খুব কঠিন। মনে হয় চোখের সামনে থেকে হঠাৎ হারিয়ে গেল। আর কোন্দিন দেখবো না, এটা কি হতে পারে? ডেইজীর মৃত্যু তেমনই এক অনুভুতির সৃষ্টি করেছে আমাদের অনেকের মধ্যে। গত ২৭ ডিসেম্বর ২০১৪ দিবাগত রাতে নিজের বাসায় ডেইজি ইন্তেকাল করেছে (ইন্না লিল্লাহে ওয়া ইন্না লিল্লাএ রাজেউন ...)। বছর শেষ হতে আর মাত্র তিন দিন বাকী ছিল। নতুন বছরে (২০১৫) এসে আমরা তার বাসায় গিয়ে তার আত্মার মাগফেরাতের জন্যে দোয়া করলাম।

হাসিনা আফরোজ সিদ্দিক (ডেইজী), যাকে ডেইজী বললেই বোধ হয় বেশী চেনা যাবে। সত্যি যেন একটি ফুলের মতো মানুষ, যার হাসি দেখে, কথা শুনে এবং তার স্পর্শ বুঝিয়ে দেয় - তার মধ্যে কোন খাদ নেই। ডেইজী নারীগ্রন

Read more... View: 3105 Leave Comment (0)


সীমা দাস সীমু


Friday 05 December 2014

প্রফেসর লতিফা আকন্দ আমাদের মাঝে আর নেই। তিনি গত ৪ ডিসেম্বর, ২০১৪ ভোরে ঢাকা বার্ডেম হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন (ইন্না....রাজিউন)। তার মৃত্যুতে আমরা গভীর ভাবে শোকাহত। আমরা তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করি।

৫ ডিসেম্বর, ২০১৪ সকাল ১০:০০ টায় ঢাকা বাডেম হাসপাতাল থেকে প্রফেসর লতিফা আকন্দ এর মরদেহ তাঁর নিজ বাসভবনে (৩২ পুরানা পল্টন লাইন, ঢাকা) নেয়া হয়। এবং জুমা নামাজের পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মসজিদে জানাজার জন্য নেয়ার পরে বনানী গোরস্তানে সমাহিত করা হয়।

প্রফেসর লতিফা আকন্দ এর নিজ বাস ভবনে সকাল থেকেই তাঁর আত্মীয়, শুভানুধায়ী, সহকর্মী, বিভিন্ন সংগঠনের প্রতিনিধিবৃন্দ, নারী নেত্রী সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিবৃন্দ ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবে

Read more... View: 3041 Leave Comment (0)


গোলাম রাব্বী বাদল এবং আব্দুল জব্বার


Sunday 30 November 2014

তামাক কোনো খাদ্য শস্য নয়, মানুষের কোনো উপকারে আসেনা, এমনকি পশু খাদ্যও নয় অথচ প্রতিবছর তামাক বৃদ্ধি পাচ্ছে। কৃষি সম্প্রসারণের তথ্য অনুসারে দেশে ২০১২-১৩ মৌসুমে ৭০,০০০ হেক্টর জমিতে এবং ২০১৩-১৪ মৌসুমে ১০৮,০০০ হেক্টর জমিতে তামাক চাষ হয়েছে। সাময়িক মুনাফার প্রলোভন দেখিয়ে কৃষকদের তামাক চাষে আগ্রহী করে তোলা হচ্ছে। ফলে খাদ্য ও অর্থকারী ফসলের জমি চলে যাচ্ছে তামাকের দখলে। সরকারের দেওয়া কোটি কোটি টাকার ভর্তূকি সার ও সেচ সুবিধা ব্যবহার করে বছরের পর বছর মুনাফা লুটে নিচ্ছে তামাক কোম্পানিগুলো। কিন্তু এই একলক্ষ হেক্টর জমিতে খাদ্য শস্য উৎপাদন করা হলে দেশের খাদ্য নিশ্চয়তায় সহায়ক হতো। তামাক কোম্পানিগুলো থেকে তামাকচাষীরা যে লাভ পায় তার সিংহ ভাগই চলে যায় কোম্পা

Read more... View: 1906 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Friday 14 November 2014

সম্প্রতি টিআইবির স্বাস্থ্য খাত সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন নিয়ে সরকার অখুশি হয়েছে। বিশেষ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী। হওয়ারই কথা। এত দুর্নীতির তথ্য-উপাত্ত হাজির করলে এবং তা টেলিভিশন ও পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত হলে ভাবমূর্তি বলে তো একটা কথা আছে, সেটা ফুটো হয়ে যায়। তাই তথ্য সঠিক কী বেঠিক যাচাই না করেই স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, বিশেষ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বসেন, এ রিপোর্ট একপেশে। তার চেয়ে ভালো হতো যদি মন্ত্রী মহোদয় সমস্যা চিহ্নিত হয়েছে দেখে দ্রুত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতেন।

আমরা যারা স্বাস্থ্য খাত নিয়ে কাজ করি আমাদের কাছে মনে হয়নি টিআইবির প্রতিবেদনে এমন কোনো নতুন তথ্য আছে, যা আমাদের কিংবা সাধারণ জনগণের জন্য আশ্চর্য হওয়ার মতো। টিআইবি তথ্যগ

Read more... View: 2725 Leave Comment (0)


সীমা দাস সীমু


Thursday 13 November 2014

সেপ্টেম্বর, ২০১৪ শেষ সপ্তাহে রানা প্লাজা ধসে নিহত শ্রমিক পরিবার ও আহত শ্রমিকদের ক্ষতিপূরণের প্রথম কিস্তি দিয়েছে রানা প্লাজা সমন্বয় কমিটি। ক্ষতিপূরণ পেয়েছেন নিহত শ্রমিকদের পরিবারের এক হাজার ৫৫২ সদস্য ও আহত ৩৫ শ্রমিক।

ক্ষতিপূরণের জন্য গঠিত আন্তর্জাতিক তহবিল রানা প্লাজা ডোনারস্ ট্রাষ্ট ফান্ড থেকে আহত শ্রমিকদের পরিবারের সদস্যদের নিজস্ব ব্যাংক হিসাবে ক্ষতিপূরণ বাবদ ১২ কোটি ৭০ লক্ষ টাকা জমা হয়েছে। এর মধ্যে নিহত পরিবারের এক হাজার ৫৫২ সদস্যদের ব্যাংক হিসাবে ১২ কোটি ৫৭ লক্ষ ৮৩ হাজার ৪১৮ টাকা এবং ৩৫ জন আহত শ্রমিককের ব্যাংক হিসাবে ১৩ লক্ষ ৬ হাজার ৮৩২ টাকা জমা হয়েছে। সমন্বয় কমিটির সদস্য সৈয়দ সুলতান উদ্দিন আহম্মদ বলেন এক হাজার ৫৮৭ জনের ব্যাংক হি

Read more... View: 3044 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Saturday 08 November 2014

সবাই বলে দাঁত থাকতে দাঁতের মর্যাদা কেউ বঝে যা, তেমনি সুইচ টিপলেই যেহেতু লাইট জ্বলে ওঠে, ফ্যান ঘুরতে শুরু করে, কম্প্যুটারে কাজ করা যায়, লিফটে দশ-বারো তলায় ঝটপট ওঠা যায়, টেলিভিশন চলে এমনকি রাইস কুকারে ভাতও রান্না হয়ে যায়, তখন মোটেও বোঝা যায় না এই বিদ্যুৎ কোথা থেকে আসছে। ভেড়ামারায় সমস্যা হোল নাকি আশুগঞ্জে তাও কেউ জানে না। জানার দরকারও মনে করে না। বিদ্যুতের মর্যাদা কেউ বোঝে না। মাসে মাসে বিদ্যুতের বিল দেয় তাতেই বিদ্যুৎ আসে এই তো কথা। ঢাকা শহরে সাধারণ মানুষ বিদ্যুৎ বলতে শুধু লাইট, ফ্যান ও টেলিভিশনই বোঝে, এইটুকু তারা সবসময় পায় না, কারণ লোড শেডিং হলে গরিব, নিম্ন বিত্ত ও মধ্যবিত্তদের এলাকাতেই হয়। ধনীরা মোটেও তের পান না, কারণ বিদ্যুৎ তাদের এলাকায় ক

Read more... View: 2763 Leave Comment (0)


সাইদা আখতার


Wednesday 05 November 2014

বাংলাদেশে নারীর সংগ্রাম, সংগ্রামের ধরণ এবং বর্তমান নারী আন্দোলনের বিষয় এবং সামগ্রিক ভাবে দেশের মানুষের মুক্তির সংগ্রামে কোন না কোন ভাবে সম্পৃক্ত রয়েছে বাংলাদেশের নারী।১৯৯৫ সালে জাতি সংঘ আয়োজিত বিশ্ব নারী সম্মেলন হয়ে গেল। আগামি ২০১৫ সালে এসে তার কুড়ি বছর পুর্ণ হবে। অনেক কাজের পরিকল্পনা নেয়া হয়েছিল। এখন দেখতে হবে কত দুর এগিয়েছি।

বেইজিং এর কুড়ি বছর উপলক্ষ্যে দেশের বিভিন্ন নারী সংগঠন নানাভাবে কাজ করছেন। নারীগ্রন্থ এই পর্যালোচনার কাজটি ঢাকার বাইরে যারা আছেন তাদের নিয়ে করেছে। তারই একটি অংশ হিশেব রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের ১৬টি জেলার নারীপ্রধান সংগঠনের প্রতিনিধিদের নিয়ে বেইজিং এর কুড়ি বছর উপলক্ষ্যে কর্মপরিকল্পনা গ্রহণের জন্য গত ২৯ অক্টোবঢ়, ২০

Read more... View: 4638 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Monday 20 October 2014

তামাক খুব বাজে জিনিষ যা উৎপাদন থেকে ব্যবহার সকল পর্যায়ে মানুষের ক্ষতি করে। যারা নিয়মিত ধুমপান করে তাদের শরীরে যে সব রোগ বাঁধে এমন কি অকাল মৃত্যু হয়, সে ব্যাপারে আমরা অনেকেই মর্মাহত হই, পরিবার ক্ষতিগ্রস্থ হয়। কেউ বাঁচতে পারে না। যে ধুমপান করে সে তো নিজেও মরে অন্যকেও মেরে যায়। তার আশে পাশে যারা থাকে তারাও ধোঁয়ায় আক্রান্ত হয়ে সমানভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়, কিন্তু কেউ বুঝতে পারে না, কারণ সে তো ধুমপায়ী নয়। এই ক্ষতিগ্রস্থদের মধ্যে রয়েছে বেশীর ভাগ নারী ও শিশু। স্বামী, ভাই, বাবার ধোঁয়ায় তাদের মৃত্যু ঘটতে পারে, কিংবা হতে পারেন রোগগ্রস্থ। এসব জানা কথা। দেশে ধুমপানের বিরুদ্ধে আইন রয়েছে, শাস্তি ও জরিমানার বিধান রয়েছে। কিন্তু তাও থামছে না, কারণ যারা এই মরণ প

Read more... View: 3219 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Saturday 11 October 2014

বাল্য বিবাহ নিয়ে সরকার একটি সমাধান দিতে গিয়ে প্রচলিত আইনে ১৮ বছর থেকে কমিয়ে ষোল বছর করার সিদ্ধান্ত প্রায় হয়ে গেছে। সম্প্রতি জাতি সংঘের ইউনিসেফের একটি প্রতিবেদনে দেখা গেছে যে বাংলাদেশে ৬৬% মেয়ের বিয়ে ১৮ বছরে আগে হয়ে যায়, আর ২০ থেকে ২৪ বছরের মেয়েদের মধ্যে তিন ভাগের এক ভাগ ১৫ বছরের আগে বিয়ে হয়ে যায়।http://www.unicef.org/bangladesh/children_4866.htm এ বছর ২২ জুলাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রায় ৬০ জন প্রতিনিধি নিয়ে লন্ডনে Girl Summit, 2014 – এ অংশগ্রহণ করে এসেছেন, যেখানে বাল্য বিবাহ বন্ধ করা অন্যতম প্রধান আলোচ্য বিষয় ছিল। সেখান থেকে ফিরে বাল্য বিবাহ রোধের কথা বলে বিয়ের বয়সে মাইনাস টু? তাহলে নিরোধ করা হোল নাকি জায়েজ হোল?

সরকারের

Read more... View: 4311 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Tuesday 23 September 2014

জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অর্থাৎ প্রাণ নিয়ে ইঞ্জিনিয়ারিং বাংলাদেশে এখন এক হুমকির সৃষ্টি করছে। আমরা জানি, প্রাণের গঠন কাঠামোর গোড়ায় রয়েছে এক ধরনের গঠন সংকেত, যাকে ইংরেজিতে বলা হয় ‘জিন’। তার সেই গঠনে বিকৃতি ঘটানোর কারিগরি আবিষ্কার করেছেন বিজ্ঞানীরা। প্রাণের মূল বৈশিষ্ট্যে বিকৃতি ঘটিয়ে যা তৈরি হয়, তাকে বলা হচ্ছে জেনেটিক্যালি মডিফাইড অর্গানিজম বা জিএমও। এটা প্রকৃতির স্বাভাবিক কোনো ঘটনা নয়। অস্বাভাবিক ঘটনা। আর বিকৃতিটা প্রকৃতির মধ্যে ঘটছে না, ঘটছে প্রাণের গঠন সংকেতের মধ্যে। ফলে তার পরিণতিও অস্বাভাবিক হওয়ারই কথা। বিকৃতি ঘটানো বিজ্ঞান কি বিজ্ঞান নয়— এ তর্কে না গিয়েও বলা যায় এই প্রযুক্তি খাটিয়ে বীজে ও ফসলে বিকৃতি ঘটানোর ফল পরিবেশ, মাট

Read more... View: 3309 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Sunday 21 September 2014

জাতিসংঘের আয়োজনে ২৩ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কে জলবায়ু শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এবারের সভায় কী ফল আসবে তা নিয়ে আগেই অনেকে হতাশ হয়ে আছেন-এ কারণে যে, ধনী দেশ, যারা পৃথিবীর তাপমাত্রা বৃদ্ধি, কার্বন নির্গমনসহ জলবায়ু পরিবর্তনের কারণগুলোর জন্য প্রধানত দায়ী, তারাই উল্টো উন্নয়নশীল দেশগুলোকে চাপ দিচ্ছে কার্বন নির্গমন কমাবার অঙ্গীকারের জন্য।

অন্যদিকে তারা নিজেরা এর জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ কিংবা প্রযুক্তিগত সাহায্য দেবে কিনা-তার কোনো ইশারাও নেই। গ্রিন ক্লাইমেট ফান্ড (GCF) করার জন্য যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্ররা তাদের জন্য ধার্য অর্থ দেয়ার বিষয়টি নিয়ে অঙ্গীকার করতে দেরি করেই যাচ্ছে। এ গ্রিন ক্লাইমেট ফান্ড মেক্সিকোর কানকুন শহরে ২০১০ সালে অনুষ্ঠিত জলবায়ু

Read more... View: 2838 Leave Comment (0)


ড. এম.এ সোবহান


Monday 15 September 2014

বাংলাদেশ প্রকৃতির লীলাভূমি। বার মাসে ছয় ঋতু। ঋতু পরিবর্তনের সাথে সাথে গাছ পালা তরু লতা ফুলে ফলে নতুন সাজে সজ্জিত হয়। শাক সবজি, ফলমূল, আবাদি ও অনাবাদি পরিবেশে বেড়ে উঠে। পরিবেশের সাথে তাল মিলিয়ে কৃষকরাও নানান জাতের ফসলের আবাদ করেন। পরিবেশে প্রকৃতির এ সজিবতায় শুধু ফসল চক্রই নয় পশু পাখি, জীব অনুজীব এমন কি জড় প্রকৃতিও যেন নতুন সাজ ফিরে পায়। একে অন্যকে আলিঙ্গন করে। আপন করে নেয়।

আদিম মানুষ বন্য পরিবেশ থেকে যখন স্থায়ী বসতি গড়ে তোলে তখন তাদের প্রথম পছন্দ ছিল ফল। ফল মানব জাতির জন্য প্রকৃতির অমূল্য উপহার। গ্রাম বাংলায় প্রচলিত আছে“জৈষ্ঠ মাস মধু মাস”। অর্থাৎ গ্রীষ্ম কাল ফলের মৌসুম। সত্য কথা, বাংলাদেশে যে সব আবাদি ফল পাওয়া যায় তার প্র

Read more... View: 4232 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Friday 12 September 2014

শিল্পী ফিরোজা বেগম আর আমাদের মাঝে নেই। সেপ্টেম্বর মাসের ৯ তারিখে তিনি আমাদের ছেড়ে গেছেন চিরতরে, ঠিক যেমনি করে গেয়েছেন ‘আমি চিরতরে দূরে চলে যাবো তবু আমারে দেবো না ভুলিতে......’। তার এই গানের সুরের রেশ আমাদের কানে লেগে আছে এবং থাকবে। শুধু এই একটি গান নয় অনেক গান। বর্তমান কালের যারা আছেন তাদের কথা জানি না, অন্তত আমরা যারা ছোটবেলা থেকে রেডিওতে তাঁর গান শুনতে শুনতে বড় হয়েছি, তাদের কাছে নজরুল ইসলামের গান মানেই ছিল ফিরোজা বেগমের গান। তাঁকে পরিচয় করিয়ে দেয়ার কিছু নেই, ফিরোজা বেগম একজনই। অনেকে নাম দিয়েছেন নজরুল সঙ্গীত সম্রাজ্ঞী। আসলে তিনি তাই। টানা কয়েকবার সেরা নজরুল সঙ্গীত শিল্পী হিশেবে স্বীকৃত হয়েছেন তিনি। অর্থাৎ তিনি ছাড়া নজরুলের গা

Read more... View: 2567 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Monday 25 August 2014

অনেক দিন আগে আমরা একটি গবেষণা করেছিলাম, যেখানে দেখতে চেয়েছিলাম বাড়ির বসতভিটায় যে গাছপালা লাগানো হয় তার কী কী কারণ আছে। বিশেষ করে নারী যখন সে গাছ লাগানোর সিদ্ধান্ত নেয় তখন কী কারণ থাকে। অনেক কারণের মধ্যে একটি গুরুত্বপূর্ণ কারণ হিসেবে এসেছিল 'নিদান-সিদানের' গাছ। টাঙ্গাইলের কৈজুরী গ্রাম থেকে এ তথ্য পেয়েছিলাম আজ থেকে প্রায় ২৫ বছর আগে। এর অর্থ ব্যাখ্যা করে গ্রামের মহিলারা বুঝিয়েছিলেন গরিব মা যদি দেখে তার ছেলেরা তাকে মরে যাওয়ার পর দাফন-কাফন করতে পারবে না, তাহলে এ গাছটি কেটে পাড়া-প্রতিবেশীরা অন্তত তার দাফনের ব্যবস্থা করবে। এ নিদান-সিদানের গাছের কথা শুনে চমকে গিয়েছিলাম। মরে যাওয়ার পর কবর দেয়া সন্তানের কর্তব্য, এমনকি সেটা সমাজেরও কর্তব্য। যে মারা য

Read more... View: 2219 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Thursday 31 July 2014

বাংলাদেশে ঈদ হয়ে গেল ২৯ জুলাই। টেলিভিশনে ঘোষণার পর পর ‘ও মন রমজানের শেষে এলো খুশির ঈদ’ গানটিও বেজে ওঠে। ঘোষণা হয়েছে শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেছে। ঈদ আসলেই আনন্দ হবে, এটা স্বাভাবিক। এই শাওয়াল মাসের চাঁদ সারা বিশ্বের মুসলিমদের জন্য একইভাবে আনন্দ নিয়ে আসার কথা। ঈদের চাঁদ। সেই চাঁদ গাজাতেও উঠেছিল। আকাশে মেঘ ছিল না, কিন্তু ইসরায়েলের শেল নিক্ষেপের কারণে আগুন লেগে আকাশ কালো কুন্ডুলি পাকানো ধোয়াঁয় ঢেকে গিয়েছিল। জানি না, ফিলিস্তিনিরা ঈদের চাঁদ দেখেছেন কিনা, তবে ঈদ সেখানেও হয়েছে।

কিন্তু এবার আসলে আমরা বাংলাদেশেও কি আনন্দ করতে পেরেছি? কিংবা যারা করেছেন তাঁরা কি দেখেন নাই ঈদের দিন গাজাতে কি হয়েছে? সেদিন টেলিভিশন যতোই আনন্দ অনুষ্ঠান দ

Read more... View: 3100 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Sunday 13 July 2014

ঈদ আসছে। সবাই কেনাকাটা করছে। নানা রংয়ের ও ঢংয়ের পোশাক। ঈদুল ফিতরেই সাবাই মূলত পোশাক কেনে, আপনজনের কাছ থেকে উপহার পায়, নিজেও কেনে। রাজধানী ঢাকায় কোন অজুহাত ছাড়াই যানজট হয়, পনের মিনিটের পথ দুই ঘন্টায় পাড়ি দিতে হয়। এখন তো শপিং মল আছে কিংবা কাপড়ের দোকান আছে এমন জায়গায় গাড়ী ও রিক্সার ভীড় লেগেই আছে। কাপড়ের পাশাপাশি ঈদের আনুসাঙ্গিক জিনিসের কেনাকাটাও হচ্ছে। ব্যাবসায়ীদের জন্য বছরের এই সময়টাতেই তাদের সারা বছরের বিনিয়োগের মূল অংশ উদ্ধার হতে পারে। এর সাথে জড়িত থাকে কর্মসংস্থানের প্রশ্ন। অর্থাৎ ঈদ একদিকে পবিত্র মাহে রমজানের রোজার শেষে ধর্মীয়ভাবে পালনের একটি দিন অন্যদিকে এর সাথে জড়িত রয়েছে দেশের অর্থনীতির একটি বিশাল অংশ। পরিবহন ব্যবসার কথা আর নাই বা বলল

Read more... View: 2816 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Monday 30 June 2014

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ৫ জুন দশম জাতীয় সংসদে ২০১৪-১৫ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপন করেছেন। এ বাজেটে অন্যসব খাতের মতো কৃষি খাতে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ৯ হাজার ৬৪৩ কোটি টাকা, যা মোট বাজেটের ৭.৬ শতাংশ। কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী এতে সন্তুষ্ট। বাজেটের পর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে অর্থমন্ত্রীর পাশের আসনে বেশ সন্তুষ্ট মনেই বসেছিলেন এবং বলেছেন তিনি যা চেয়েছেন তাই পেয়েছেন, যা স্বাস্থ্য ও শিক্ষামন্ত্রীরা পাননি।

আমরা যারা কৃষকের সঙ্গে কাজ করি তারা বাজেট বক্তৃতা বিস্তারিত পড়ে হতাশ হয়েছি, কারণ এ বাজেট আসলে কৃষকের জন্য নয়, বিজ্ঞানীদের জন্য। তাতে আপত্তি থাকার কথা নয়, কারণ কৃষিতে বিজ্ঞানীদের অংশগ্রহণ কৃষকের অনুকূলে হতে পারে। কিন্তু বাজেটে

Read more... View: 2502 Leave Comment (0)


গোলাম রাব্বী বাদল


Sunday 15 June 2014

দেরীতে হলেও এটা আশার কথা যে সরকার মানতে বাধ্য হচ্ছেন বাংলাদেশে বিষ মুক্ত খাদ্য পাওয়া এবং খাওয়া দুটোই বেশ শক্ত। নজির হচ্ছে ডেইলী স্টার, ২৮ এপ্রিল ২০১৪ প্রকাশিত সংবাদ শিরোনাম “৪০% খাদ্য বিষাক্ত”। এই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে এফএও এর আর্থিক সহায়তায় সরকারী ল্যাবোরেটরিতে খাদ্য শস্যের নমুনা পরীক্ষার ফলাফল বিশ্লেষণ করে খাদ্য শস্যে বিষাক্ত পেস্টিসাইডের মাত্রা বেশি থাকায় খাদ্য বিষাক্ত। খাদ্য বিষাক্ততার মান ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের নিরাপদ খাদ্য মানের সঙ্গে তুলনা করা হয়েছে। পরীক্ষিত খাদ্য নমুনায় যে সব খাদ্যে বিষাক্ততা চিহ্নিত হয়েছে, তারমধ্যে রয়েছে- দুধ ও দুগ্ধজাত খাদ্য, ফল, সবজি, শুটকি মাছ। পেস্টিসাইডে বিষাক্ত খাদ্যের মধ্যে ৫০% সবজি, ৩৫% ফল খাদ্য হ

Read more... View: 2834 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Saturday 14 June 2014

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বাজেট ২০১৪-১৫ দশম জাতীয় সংসদে পেশ করেছেন। এ সংসদের ১৫৪টি আসন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় 'নির্বাচিত', আর বাকি আসনগুলোয় যে ভোট হয়েছে তাতে ভোটারের উপস্থিতি ছিল খুবই নগণ্য। সবচেয়ে বড় কথা দেশের অনেক রাজনৈতিক দল, ছোট-বড় কেউই অংশ নেয়নি। বড় দল বা সাবেক বিরোধী দল বিএনপি এ নির্বাচনে অংশ নেয়নি। কাজেই বাজেট ঘোষণার জন্য সরকারের জনসমর্থন আছে কিনা বিচার করলে, সেটা নেই। বাজেটে রাজস্ব আয়ের জন্য কর ধার্য করা হয়, জনগণ সেটা মেনে নিয়ে কাজ করে। এবার জনগণের মধ্যে এক ধরনের অনীহা দেখা যাচ্ছে। এ বাজেট কি আমাদের জন্য?

তবুও অর্থমন্ত্রী বাজেট ঘোষণা করেছেন তার নিয়ম রক্ষার জন্য। ২০১৪-১৫ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের মোট আকার ধরা হয়েছে

Read more... View: 2334 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Friday 30 May 2014

জাতীয় বাজেটে জনগণের ব্যবহার্য নিত্যপ্রয়োজনীয় ও বিলাস দ্রব্যের ওপর কর আরোপ করা হলে সে পণ্যের দাম বাড়বে কী বাড়বে না তা নির্ধারিত হয়। আমরা জানি, কর আরোপের সাধারণ উদ্দেশ্য রাজস্ব আয় বৃদ্ধি করা; কিন্তু রাজস্ব বৃদ্ধি করতে গিয়ে জনগণের ওপর যেন চাপ সৃষ্টি না হয় তার দিকেও নজর দিতে হয়। সরকারের দিক থেকে এসব বিষয় লক্ষ্য রাখা অত্যন্ত জরুরি। কর আরোপের মাধ্যমে নিষিদ্ধ নয়; কিন্তু মানুষের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর পণ্যের ব্যবহার কমানো ওই বিশেষ কৌশলে একটি বিশেষ পদক্ষেপ হিসেবে নেয়া যেতে পারে।

এমন কিছু পণ্য আছে যা ক্ষতিকর; কিন্তু দামে সস্তা হওয়ার কারণে ব্যবহার কমানো সম্ভব হয় না। সেক্ষেত্রে উচ্চ হারে কর আরোপ করে দাম বাড়িয়ে দেয়া জরুরি পদক্ষেপ হিসেবে স্বীক

Read more... View: 2495 Leave Comment (0)


বিটি বেগুন বিরোধী মোর্চা


Friday 23 May 2014

ভুমিকা

বিটিবেগুন একটি জিএমও বা জেনেটিকালী মডিফাইড অর্গানিজম। ব্যাসিলাস থুরিনজেনসিস (bacillus thuringenesis সংক্ষেপে বিটি) ব্যাকটেরিয়া থেকে ক্রিসটাল জিন বেগুনে সংযোজন করা হয়েছে। উদ্দেশ্য হিশেবে বলা হয়েছে বেগুনের ফল ও কাণ্ড ছিদ্রকারী পোকা প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করা। বাংলাদশে কৃষি গবেষণা প্রতিষ্ঠান (BARI) এই গবেষণা করছেন, যুক্তরাষ্ট্রের সাহায্য সংস্থা ইউএসএইডের বিশেষ কর্মসুচী ABSP II এর অধীনে। বিটিবেগুনের বীজ বারি ভারতের মাহিকো কোম্পানি থেকে এনেছেন। তাদের কাজ হচ্ছে বাংলাদেশের কৃষকদের দিয়ে এর পরীক্ষা করা।

বিটি বেগুনের ছাড়পত্রের জন্য বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা প্রতিষ্ঠান (বারি) ২০১৩ সালের জুলাইয়ের মাঝামাঝি সময়ে (১৪ জুলাই) কৃষক পর্যায়ে

Read more... View: 9251 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Wednesday 16 April 2014

বাংলা সনের বছর শেষ হয় চৈত্র মাসে, তারপরেই আসে বৈশাখ। নতুন বছরের শুরু। শহরের মানুষ ইংরেজি নববর্ষের অনুকরণে বাঙালি কায়দায় নতুন বছর বরণ করে নেয়। সেটা হয় উৎসবমুখর। আজকাল গ্রামেও সাদা শাড়িতে লাল পাড় ও পুরুষদের সাদা-লাল কাপড় পরে বর্ষ বরণ করার রীতি শুরু হয়েছে। আগে পোষাকের বিষয়টা এতো চোখে পড়েনি। গান, নাচ ও মেলায় যাওয়া, বাড়িতে বিশেষ রান্না - সব মিলে অর্থনীতি-সংস্কৃতির মধ্যে একটা মিলমিশ হয়ে গেছে। ব্যাবসায়িরা হালখাতা নিয়ে ব্যস্ত, সঙ্গে চলে মিষ্টি খাওয়ার ধুম।

তবে বাংলায় নববর্ষ বা নতুন বছর আসল ব্যাপার নয়, এটা শুধু ক্যালেন্ডার পরিবর্তনের বিষয়ও নয়। আসল বিষয় সংক্রান্তি। বাংলার গ্রামের সাধারণ মানুষ সময়কে মাস দিয়ে চেনে। বাংলা মাস হিশেবে চৈত্র, বা ব

Read more... View: 7533 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Monday 07 April 2014

হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসকের হাতে ‘ভুল’ চিকিৎসায় বা অবহেলায় রোগীর মৃত্যু নতুন কোন ঘটনা নয়। শুধু বাংলাদেশে নয়, এই ঘটনা অনেক দেশেই ঘটছে, খোদ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, এবং এশিয়ার বড় বড় হাসপাতালে পর্যন্ত এমন ঘটনা ঘটছে। বাংলাদেশে সরকারী হাসপাতাল হোক বা প্রাইভেট ক্লিনিক কোথাও রোগীরা এমন ঘটনার শিকার হননি বলা যাচ্ছে না। তবে ইদানীং প্রাইভেট ক্লিনিকে এই ঘটনা বেশী শোনা যাচ্ছে। আবার সরকারী বা বেসরকারী হাসপাতালে এমন ঘটনা ঘটলে রোগীর আত্মীয় স্বজনের প্রতিবাদ হচ্ছে আর চিকিৎসকরাও পালটা প্রতিবাদ করছেন। ফলে এখানে বিষয়টি জটিল আকার ধারণ করেছে। মানুষ বুঝতে পারছে না তারা কার পক্ষ নেবেন। অসুখ হলে তো ডাক্তারের কাছেই যেতে হবে, আবার ডাক্তারকে অভিযুক্ত

Read more... View: 2751 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Monday 24 March 2014

বাইশে মার্চ পালিত হোল বিশ্ব পানি দিবস। জাতি সংঘের সংস্থা ইউনিসেফ-এর বরাতে বলা হোল ‘সারা বিশ্বে নিরাপদ পানি সংক্রান্ত সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এমডিজি) অর্জনের প্রায় চার বছর পর এবং জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে ‘পানি পাওয়ার সুযোগ একটি মানবাধিকার’ বলে ঘোষণার পরও ৭৫ কোটিরও বেশী মানুষ পানির চাহিদা মেটানো থেকে বঞ্চিত রয়ে গেছে। বাংলাদেশে এই বঞ্চিতদের সংখ্যা ২ কোটি ৬০ লাখ মানুষ। ১৯৯৩ সালে বিশ্ব পানি দিবস ঘোষণার পর থেকে এই দিবসের একটি প্রতিপাদ্য থাকে; এবারেরটা ছিল পানি ও জ্বালানী সংকট, যা একে অপরের সাথে জড়িত, কিন্তু বাংলাদেশে সুপেয় পানি, নদী-দুষণ ইত্যাদি গুরুত্ব পেয়েছে বেশী।

আমি পানি দিবস নিয়ে লিখছি না, তবে পানি নিয়ে বলার অ

Read more... View: 3222 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Saturday 08 March 2014

সমাজে নারীর প্রতি বৈষম্য, শোষণ, নির্যাতন সব কিছুই যেন নারীকে যুগ যুগ ধরে বেঁধে রেখেছে, নারী সেসব শৃংখল ভেঙে এগিয়ে যাওয়ার জন্য সংগ্রাম করে যাচ্ছে। এখনও, এই ২০১৪ সালেও। এবার আন্তর্জাতিক নারী দিবসের বক্তব্য Inspiring Changes- পরিবর্তনের অনুপ্রেরণা। তাহলে পরিবর্তন কিছু নিশ্চয়ই আসছে এবং এর পেছনে রয়েছে অনেকের অবদান। নারীদেরই অবদান। আন্তর্জাতিক নারী দিবসকে স্বাগত জানিয়ে আজকের লেখাটি লিখছি আমাদের তরুণ প্রজন্মের প্রতি অনুপ্রেরণা জোগানোর জন্য। তবে আজকের লেখায় আমি কিছু আন্তর্জাতিক প্রেক্ষাপট বেশি ব্যবহার করব আমাদের নিজেদের অবস্থা বোঝার জন্য।

পরিবর্তনের ক্ষেত্রে একটি বড় ধরনের আন্দোলন ছিল নারী ও পুরুষের মধ্যে সমতা অর্জন। এটা একদিকে প্রয়োজন ছিল এ

Read more... View: 2400 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Thursday 20 February 2014

বহুবার লিখেছি, নারী সংগঠনের পক্ষ থেকে আমরা আন্দোলন করেছি একটি দাবি নিয়ে। সেটা হচ্ছে জাতীয় সংসদে নারীদের জন্য যে আসন সংরক্ষিত আছে, তা সরাসরি নির্বাচিত হোক। নারীর রাজনৈতিক ক্ষমতায়নের প্রশ্ন যখনই ওঠে ততবার এই কথার মীমাংসা জরুরি হয়ে পড়ে জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত নারী আসনের কী হবে? পৃথিবীর অনেক দেশেই নারীদের জন্য আসন সংরক্ষণের ব্যবস্থা আছে; কিন্তু এভাবে এত দীর্ঘকাল ধরে শুধু মনোনয়নের ব্যবস্থা কোথাও আছে বলে আমার জানা নেই।

বাংলাদেশে এই দাবি উঠেছে স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে নারী সংগঠনের সরাসরি অংশগ্রহণের সময় থেকে, ১৯৮৭ সালে। সেটাই ছিল নারীর রাজনৈতিক ক্ষমতায়নের লড়াইয়ের একটি উল্লেখযোগ্য সময়কাল। রাজপথের আন্দোলনে থেকে নারীরা বুঝেছিলেন শুধু স্বৈরাচার হঠ

Read more... View: 2633 Leave Comment (0)


উবিনীগ


Tuesday 18 February 2014

বিটি বেগুন চাষের অনুমোদন প্রত্যাহার এবং কৃষক পর্যায়ে চাষ বন্ধের দাবীতে, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৪, সকাল ১১টায় গাজীপুর জেলা প্রসাশক ভবনের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বিটি বেগুন বিরোধী মোর্চা এই প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করে। বিটি বেগুন বিরোধী মোর্চা- পরিবেশ সংগঠন, উন্নয়ন সংগঠন, কৃষক সংগঠন, স্বাস্থ্য আন্দোলন নেটওয়ার্ক, শ্রমবিকাশ কেন্দ্র সহ বিভিন্ন সংগঠনের একটি মোর্চা। এই সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মহিদুল হক খান, ফরিদা আখতার, জাহাঙ্গীর আলম জনি, টাংগাই থেকে আগত কৃষক আক্কাস আলী, কৃষক মাঈনুদ্দীন, কৃষক সুলতানা বেগম ও বাসিরন বেগম, কৃষক জিন্নাত আলী বক্তব্য রাখেন। আরও বক্তব্য রাখেন, পলাশ বড়াল, সাঈদ আহমেদ কবির, রোকেয়া বেগম, সীমা দাস সীমু, আতাউর রহমান মিটন।

Read more... View: 2981 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Sunday 02 February 2014

বেগুন একটি অতি পরিচিত এবং দেশ-বিদেশের সব মানুষের প্রিয় একটি সবজি। এটি নানাভাবে রান্না করে খাওয়া যায়। বাংলাদেশের কৃষির অন্যান্য ফসলের মতো এর স্থানীয় জাতের বৈচিত্র্য আছে অনেক। জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার হিসাবে আছে অন্তত ২৪৭টি, এলাকাভেদে কৃষকরা কমপক্ষে ৪০ জাতের বেগুন চাষ করেন। তার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে কীটনাশকনির্ভর হাইব্রিড ও উফশী জাত প্রায় ১৯টি। বাণিজ্যিকভাবে বেগুন চাষ করতে গিয়ে উফশী ও হাইব্রিড বেগুনে ব্যাপক পরিমাণে কীটনাশক ব্যবহার করতে হয়। এ ব্যাপারে পরিবেশবাদী এবং নিরাপদ খাদ্য নিয়ে যারা কাজ করেন তাদের পক্ষ থেকে অনেক উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে।

কিন্তু এসব সমস্যার সমাধান না করেই এখন নতুনভাবে আসছে বিটি বেগুন। বলা হচ্ছে, বেগুনের একটি প্রধ

Read more... View: 4252 Leave Comment (0)


বিটি বেগুন বিরোধী মোর্চা


Friday 24 January 2014

গত ২৩ জানুয়ারি, ২০১৪ তারিখ শাহবাগের মোড়ে বিটি বেগুন বিরোধী মোর্চার আয়জনে  মানববন্ধন ও উন্মুক্ত সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। জনস্বাস্থ্য ও পরিবেশের ক্ষতি বিবেচনা না করে কৃষকদের মাঝে বিটি বেগুনের চারা হস্তান্তর করায় বিটি বেগুন বিরোধী মোর্চা তীব্র ক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানায়। বিটি বেগুন বিরোধী মোর্চা ২০১৩ সালে বিটি বেগুনের বাণিজ্যিক চাষের উদ্যোগের বিরদ্ধে  স্বাস্থ্য, পরিবেশ, নারী ও মানবাধিকার সংগঠন সমুহের সমন্বয়ে গড়ে ওঠা একটি মোর্চা। এর উদ্দেশ্য হচ্ছে, বিটি বেগুনের গবেষণায় মানুষের স্বাস্থ্য ও পরিবেশের জন্য নিরাপদ প্রমানিত না হওয়া পর্যন্ত যেন বাণিজ্যিক চাষ করা না হয় তার জন্য আন্দোলন করা এবং সচেতনতা সৃষ্টি করা। গতকাল ২২ জানুয়ারি, ২০১৪ তারিখে

Read more... View: 2372 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Monday 20 January 2014

মাঘ মাস চলছে, এখন কৃষির ভরা মৌসুম। একদিকে কৃষকের ঘরে নতুন ধান, অন্যদিকে রবি ফসলে মাঠ রঙ্গীন হয়ে আছে। এই সময় সব ধরণের সবজি, মসলা, তেল ও ধানের ফসল মাঠটাকে নানা রঙ্গে ভরিয়ে তোলে। দেখতে সত্যিই সুন্দর, চোখ জুড়ে যায়। কৃষক আনন্দে থাকে, ঘরে নতুন ধানের চালের নানা পিঠা-গুড় দিয়ে আপ্যায়ন চলছে। শুধু গ্রামে নয়, শহরেও আজকাল পিঠার প্রতি আগ্রহ বেড়েছে। এই সব মিলে বাংলাদেশ আসলেই একটা সুন্দর ও সুজলা-সুফলা দেশ।

এই সবই এদেশের ক্ষুদ্র কৃষকদের অবদান। তারাই দেশের নানা স্থানে স্থানীয় বৈশিষ্ট্য বজায় রেখে ফসল উৎপাদন করে চলেছেন দিনের পর দিন। তাদের কারণেই ভাতের ধান উৎপাদনের পাশাপাশি পিঠার ধান (যেমন মুক্তাহার, কালরাজ), মুড়ির ধান (ঘিগজ), খৈয়ের ধান (ঝিংগাপোড়া), চিড়

Read more... View: 3145 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Monday 09 December 2013

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেগম রোকেয়া পদক বিতরণী অনুষ্ঠানে একটি অতি সত্য কথা বলে ফেলেছেন, যদিও এক পক্ষীয়ভাবে, বিরোধী দলীয় নেত্রীকে দোষারোপ করে। তিনি বুঝেছেন যে দুই নেত্রীকে জনগণ গালি দিচ্ছে। তিনি বলছেন বিরোধী দলীয় নেত্রী হরতাল-অবরোধ দিয়ে মানুষ না মারলে ‘দুই নারী হিশেবে গালি খেতে হতো না’। হরতাল অবরোধ করে যদি শুধু বিরোধী নেত্রীর দোষ হতো তাহলে দুই নারীকে জনগণ গালি দেবে কেন? যিনি অন্যায় করছেন তাকেই দেবে। জনগণ এতো অবিবেচক নয়। কাজেই ব্যাপারটা প্রধানমন্ত্রী স্বীকার না করলেও সত্যি যে আচরণ, প্রতিহিংসাপরায়ণতা এবং দোষারোপ করার দিক থেকে তারা দুই নেত্রী তাদের জায়গা থেকেই মূল্যায়ন করে। তারা বিষয়টি ভালোভাবে নিচ্ছে না, তাই দুই নেত্রীকেই প্রধান

Read more... View: 2170 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Wednesday 04 December 2013

গত ক’দিন বিরোধী দলের ডাকা অবরোধ কর্মসূচি চলছে, একইসঙ্গে চলছে নানা ধরনের রাজনৈতিক ‘সহিংসতা’। সহিংসতার সঙ্গে উদ্ধৃতি চিহ্ন দিলাম এই কারণে যে, সমাজে একটা ধারা আছে, যারা অবরোধ কর্মসূচি নাকি হরতাল সে ব্যাপারে বিভ্রান্ত হয়ে ঠিক করতে পারছেন না, ঠিক কীভাবে নিজেদের কাজকারবার করবেন। যারা সরাসরি অবরোধের বিরোধিতা করছেন এবং তাদের দাবি সঠিক নয়, এটা প্রমাণ করতে চাচ্ছেন, তাদের জন্য এই সময়ে ঘটে যাওয়া সহিংসতার মাত্রা কতখানি তা দিয়ে আন্দোলনের যৌক্তিকতা বিচার করছেন। ট্রেনের লাইন বা ফিশপ্লেট তুলে ফেলা, রাস্তায় গাছ কেটে ফেলে রেখে রাস্তায় চলাচল বন্ধ করে দেয়া, সিএনজি, লেগুনা ও বাসে আগুন লাগানো,ককটেল ফোটানো-কোনোটাকেই ভালো কাজ বলার অবস্থা নেই।

Read more... View: 2212 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Wednesday 20 November 2013

একদিকে জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে কি হবে না সংশয়, অন্যদিকে সরকারি দলের প্রস্তুতি চলছে মনোনয়নপত্র বিক্রির। এ যেন এক উৎসব। নাচানাচি হচ্ছে, ঢোল বাজছে। তবে এ উৎসবে আসনসংখ্যা গনা হচ্ছে ৩০০। মনে হচ্ছে এগুলো বেশির ভাগ পুরুষদের জন্য নির্ধারিত। মোটরসাইকেল র?্যালি করে এসে মনোনয়ন চাওয়ার মধ্যে তাই প্রতীয়মান হয়। তারা সবাই ৩০০ সাধারণ আসনের মধ্যে নিজ নির্বাচনী এলাকার মনোনয়নপত্র কিনছেন ২৫ হাজার টাকা দিয়ে। এরই মধ্যে সবার অজান্তে থেকে যাচ্ছে ৫০টি আসন, যা সংরক্ষিত নারী আসন নামে পরিচিত। যখন সংসদ অধিবেশন চলে তখন যিনি চালান অর্থাৎ স্পিকার, তিনি যে আসন থেকে এসেছেন সে আসনও এখন গনার বাইরে। এ বড় অদ্ভুত ব্যাপার। এ আসনগুলোর মর্যাদা কখন বাড়ে বা কমে তা বোঝার উপায় নেই। স্প

Read more... View: 2542 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Tuesday 05 November 2013

সকল ধরণের উদ্বেগ উৎকন্ঠার তোয়াক্কা না করেই শেষ পর্যন্ত গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয় বিটি বেগুনের “শর্তসাপেক্ষে অনুমোদন” প্রদানের প্রজ্ঞাপন জারী করেছে। বোঝাই যাচ্ছে যারা এই অনুমোদন দিয়েছেন তাঁরা নিজেরাই নিশিচত নন যে এই বেগুন আসলেই নিরাপদ কিনা। অথচ এই কথা পরিবেশবাদী ও কৃষকদের নিয়ে কাজ করেন এমন সংগঠন গুলো এতোদিন ধরে বলে আসছেন। তাঁরা দাবী জানিয়েছিলেন মানুষের স্বাস্থ্য, পরিবেশ ও স্থানীয় জাতের বেগুনের ওপর এর ক্ষতিকর প্রভাব পড়বে কিনা নিশ্চিত না হয়ে যেন অনুমোদন না দেয়া হয়। এই একই কারণে ভারত ও ফিলিপাইনে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। কিন্তু সে কথার কোন গুরুত্ব সরকার দেন নি। এমনকি বিশ্বের নামকরা বিজ্ঞানীরা মাননীয় প্রধান মন্

Read more... View: 2952 Leave Comment (0)


জিএমও বিরোধী গণ মোর্চা, বাংলাদেশ


Wednesday 18 September 2013

বাংলাদেশে বেগুনের মতো সব্জি একেবারে সাধারণ মানুষের খাদ্য এবং পুষ্টির উৎস। বেগুন কৃষকের বাড়তি আয়ের সুযোগ করে দেয়। বাংলাদেশ বেগুনের শত শত জাতের আদি উৎপত্তিস্থল। সেইদেশে হঠাৎ বিনা কারণে পরিবেশ ও স্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ জেনেটিকালী মডিফাইড বেগুন বা বিকৃত বেগুন কৃষক পর্যায়ে চাষের অনুমতি চাওয়ার যে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে তার কোন যুক্তি নাই। বাংলাদেশে এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানানো হচ্ছে দীর্ঘদিন ধরে। জিএমও বিরোধী গণমোর্চা ইতিমধ্যে এ বিষয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছে এবং পরিষ্কার বলেছে বাংলাদেশে এই ধরণের বিকৃত বেগুনের কোন প্রয়োজনীয়তাই নাই।

বাংলাদেশে ২০০৯-১০ সালের পরিসংখ্যান ব্যুরোর হিশাব অনুযায়ী রবি এবং খরিফ মৌসুমে মোট ১১৫৪২৪ একর জমিতে ৩৪১২৬২ মেট্রিক টন ব

Read more... View: 3299 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Thursday 08 August 2013

এক

জেনেটিকালি মডিফাইড (GM) বীজ বা বিকৃত বীজের প্রতি নীতিনির্ধারকদের পক্ষপাতিত্ব বাংলাদেশের কৃষিব্যবস্থাকে সর্বনাশের দিকে নিয়ে যাবার বিপদ তৈরী হয়েছে। অন্যান্য দেশের তুলনায় আমাদের সমাজে এ ব্যাপারে সচেতনতা কম। এটা বিপজ্জনক। বাংলাদেশে জেনেটিকালী মডিফাইড (জিএম) শস্য বা খাদ্য উৎপাদনের গবেষণা দেশে বিদেশে নানা আপত্তি সত্ত্বেও চলছে। মনসান্টো, সিনজেন্টা ও আরও বহুজাতিক কোম্পানি আন্তর্জাতিক ও দ্বিপাক্ষিক সাহায্য সংস্থা, সরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান এবং কৃষি বিজ্ঞানী ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলো প্রায় এক যুগ ধরে বিকৃত বীজের ওপর গবেষণা করে আসছেন। তাঁরা বলছেন খাদ্য উৎপাদনের জন্

Read more... View: 3776 Leave Comment (1)


উবিনীগ


Friday 19 July 2013

স্বাস্থ্য, পরিবেশ ও প্রাণবৈচিত্র্যের ঝুঁকি নিয়ে বিটি বেগুনের অনুমোদন দেয়া যাবে না এবং স্থানীয় জাতের বেগুন রক্ষা করতে হবে বিষয়ে ১৮ জুলাই, ২০১৩ বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনষ্টিটিউট (বারি) এবং গাজীপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনষ্টিটিউটের প্রধান কার্যালয় ঢাকা শহর থেকে প্রায় ৩০ কিলোমিটার দূরে গাজীপুর জেলায় অবস্থিত।তাই এই মানবব বন্ধনের আয়োজন সেখানেই করা হয়।উবিনীগ, নয়াকৃষি আন্দোলন ও স্বাস্থ্য আন্দোলনের সদস্যরা এই মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। মানবন্ধনে অংশ নেয়ার জন্য পাবনার ঈশ্বরদী থেকে নয়াকৃষির কৃষক নিহার বানু, হাফিজুর রহমান, মরিয়ম বেগম ও এলাহি বক্স,এবং টাংগাইল থেকে আক্কাছ আলী,

Read more... View: 3220 Leave Comment (0)


নয়াকৃষি আন্দোলন ও উবিনীগ


Wednesday 10 July 2013

মানুষের --  বিশেষত কৃষকের স্বাস্থ্য ও পরিবেশের জন্যে হুমকি হওয়ার কারণে যে বিকৃত বেগুন অন্যন্য দেশে নিষিদ্ধ হয়েছে বাংলাদেশে সেই বেগুন কৃষকের মাঠে চাষের অনুমোদন দেয়ার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে নয়াকৃষি আন্দোলন ও উবিনীগ। বিটি বেগুন  নিরাপদ কিনা তা মোটেই প্রমানিত নয়। দেশে এতো বেগুন থাকার পরেও বাংলাদেশের কৃষি ব্যবস্থাকে বহুজাতিক কোম্পানির হাতে তুলে দেওয়ার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ ও প্রতিরোধ জানাতে নয়াকৃষি আন্দোলনের কৃষক ও উবিনীগের গবেষকরা আহ্বান জানিয়েছেন।

সম্প্রতি জুনের (২০১৩) মাঝামাঝি সময়ে বিটি বেগুন এর বীজ কৃষক পর্যায়ে চাষ করার জন্য কৃষি মন্ত্রণালয়ে অনুমোদন চেয়ে আবেদন করেছে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা প্রতিষ্ঠান (বারি)।বেগুনের মতো অতি পরিচিত এ

Read more... View: 3712 Leave Comment (0)


রোকেয়া বেগম


Friday 14 December 2012

ভুল চিকিৎসায় মা ও নবজাতক দুজনেই মারা গিয়েছেন

চিকিৎসকের অবহেলা ও ভুল চিকিৎসায় মৃত্যুর খবর ইদানিং খুব বেশি ঘটছে। পত্রিকা খুললেই এই দুঃসংবাদটি চোখে পড়ে । যেখানে সরকার মাতৃমৃত্যু এবং শিশুমৃত্যু রোধ করার জন্য বিভিন্ন কার্যক্রম হাতে নিয়েছে। সেই সময়ে এই মৃত্যুর সংবাদ খুবই বেদনা দায়ক। চিকিৎসকের অবহেলা,ভুল চিকিৎসায় জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৯ মাসে প্রসূতি মৃত্যু হয়েছে ১৯ জন। চিকিৎসকের অবহেলায় ও ভুল চিকিৎসায় মৃত্যু হয়েছে ১৮ টি নবজাতকের। দেখা গেছে বেশির ভাগ মৃত্যু হয়েছে বেসরকারী বা প্রাইভেট ক্লিনিকে। সরকারী হাসপাতালে যে সব মৃত্যু হয়েছে

Read more... View: 4975 Leave Comment (0)


উবিনীগ


Tuesday 18 September 2012

কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরি ২০০৯ সালে উগান্ডা থেকে নেরিকা নামে একটি ধানের জাত নিয়ে আসেন। এই ধানের জাতটি আন্তর্জাতিক উদ্যোগে আফ্রিকার জন্যই উদ্ভাবন করা হয়েছিল। এর গবেষণার জন্য যেমন বিপুল পরিমান অর্থ খরচ করা হয়, তেমন তার সাফল্য প্রচারের পেছনেও অর্থ খরচ করা হয় প্রচুর। বেশ কয়েকটি ধনি দেশ, আন্তর্জাতিক সাহায্য সংস্থা, গবেষণা প্রতিষ্ঠান এবং বহুজাতিক বীজ কোম্পানি মিলে আফ্রিকায় নেরিকার সাফল্য প্রমাণ করতে ব্যস্ত। এই সাফল্যের দাবি নিয়ে সন্দেহ ছিল শুরু থেকেই। কিন্তু আফ্রিকার খাদ্য সমস্যার সমাধানের কথা বলে সে সকল সন্দেহকে উড়িয়ে দেওয়া হয়। এর সঙ্গে যুক্ত হয় নতুন অজুহাত। যেমন, জলবায়ুর পরিবর্তন। নেরিকা ধানের জাতে বিভিন্ন সমস্যার

Read more... View: 4419 Leave Comment (1)


ফরিদা আখতার


Thursday 13 September 2012

 তরিতরকারীর মধ্যে বাংলাদেশে্ বেগুন সবারই অত্যন্ত পছন্দের। খুব আনন্দ করেই আমরা এই সব্জি খাই।কিন্তু আতংকের বিষয় এই বেগুনে অন্য প্রজাতির ‘জীন’ ঢাকানো হচ্ছে। বেগুনের স্বাভাবিকত্বের হানি ঘটিয়ে এই বিকৃতির দরকার কি? বলা হচ্ছে, যে বেগুন আমরা এতকাল খেয়ে এসেছি সেই বেগুনে নাকি দোষ আছে। দাবি করা হচ্ছে, ‘ডগা ও ফল ছিদ্রকারী পোকা ছোট ছোট বেগুন গাছের কচি ডগা ছিদ্র করে ভেতরে প্রবেশ করে এবং খায়। কীড়া কচি ও বাড়ন্ত বেগুন ছিদ্র করে ভিতরের নরম শাঁস খায়’ ইত্যাদি। এই তথ্য কারা প্রচার করছে? করছে ভারত থেকে প্রকাশিত ABSP II এর বিটি বেগুনের ওপর স

Read more... View: 4884 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Sunday 12 August 2012

তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন সংশোধন

কিছু তথ্য ভয়াবহ। যেমন, তামাক ব্যবহারের প্রত্যক্ষ্ ফল হিসেবে প্রতি বছর ৩০ বছরের বেশী বয়স্ক জনগোষ্ঠির মধ্যে প্রতি বছর ৫৭,০০০ জন মৃত্যু বরণ করেন এবং ৩,৮২,০০০ জন পঙ্গুত্ব বরণ করেন। এই তথ্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার। এই সংখ্যা প্রতি বছরের। গত দশ বছরের হিশাব নিলে মাথা ঘুরে যাবে। আবার নিজে ধূমপান না করেও অন্যের ধূমপানের ফলে কর্মক্ষেত্রে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন ১ কোটি ১৫ লক্ষ মানুষ। বাড়ী ঘর, রাস্তা ঘাটের হিশাব নিলে এই সংখ্যা দুই তিনগুণ বেড়ে যাবে। বলা বাহুল্য, এর শিকার প্রধানতঃ নারী।

বাংলাদেশে ১৫ বছরের বেশী জনগোষ্ঠির মধ্যে ৪৩.৩% মানুষ কোন না কোনভাবে তামা

Read more... View: 2892 Leave Comment (0)


ফরিদা আখতার


Friday 27 July 2012

প্রজনন স্বাস্থ্যের প্রতি অবহেলা ও বিজিএমইএ সমাচার!

বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস ছিল ১১ জুলাই।সরকার এবং সংশ্লিষ্ট সংগঠন পালন করেছেন নিয়মানুযায়ী।কিন্তু একটু অবাক হলাম দেখে যে জাতি সংঘের দেয়া প্রতিপাদ্য Universal Access to Reproductive Health Services বা সার্বজনীন প্রজনন স্বাস্থ্য সেবার প্রাপ্যতা নিয়ে যেন কারো কোন ভ্রুক্ষেপ নেই। এগারো তারিখের পত্রিকা খুললে মনে হবে সেদিন বাংলাদেশে জন সংখ্যা কত, কোন জেলায় জন্মহার বেশী বা কম,আদম শুমারীর ফলাফল কি ইত্যাদী তথ্য দিয়ে ভরা। আরও লক্ষ্যণীয় বিষয় হচ্ছে এই দিনে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের প ক্ষ থেকে কোন ক্রোড়পত্রও ছিল না।

এতোদিন

Read more... View: 3393 Leave Comment (0)


স্বাস্থ্য আন্দোলন


Tuesday 29 May 2012

স্বাস্থ্যখাতে বাজেট বরাদ্দ বাড়াও - স্বাস্থ্য আন্দোলন

স্বাস্থ্য আন্দোলন  বিগত তিন বছর ধরে স্বাস্থ্য খাতে বরাদ্দ বাড়াবার জন্য দাবি জানিয়ে আসছে। প্রায় কোন সরকারের আমলেই স্বাস্থ্যখাতে বরাদ্দ ৭% পর্যন্ত যায় নি। ২০০৭-০৮ থেকে ধরলে গড়ে ৬.৪% যা মোট জিডিপির মাত্র ১%। চলতি অর্থবছরের (২০১১-১২) জাতীয় বাজেটে উন্নয়ন ও অনুন্নয়ন মিলিয়ে স্বাস্থ্যখাতে মোট বরাদ্দ তার চেয়েও কমে গিয়েছে, বরাদ্দ দেয়া হয়েছে মোট বাজেটের ৫.৪% এবং মোট জিডিপির মাত্র ০.৯৮%। আন্তর্জাতিক বিধি অনুসারে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, একটি দেশের উন্নয়নের জন্য জ

Read more... View: 3269 Leave Comment (0)


মাহমুদা খাতুন নার্গিস


Sunday 27 May 2012

তামাকজাত দ্রব্যের ওপর কর বাড়াও - তামাকবিরোধী নারীজোট

ধূমপান এবং ধোঁয়াবিহীন তামাকজাত দ্রব্যের ব্যবহার ও এর ক্ষতির শিকার শ্রমজীবী মানুষেরাই হচ্ছে সবচেয়ে বেশী। সার্বিকভাবে তামাকজাত দ্রব্যের ব্যবহারে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে নারীরা। এই অপূরণীয় ক্ষতি রোধ করতে হলে অবিলম্বে আমাদের সচেতন কার্যক্রম গ্রহণ করা প্রয়োজন। ধোঁয়াবিহীন যেমন-জর্দা, গুল, সাদাপাতা সহ সকল তামাকজাত দ্রব্যের কর বৃদ্ধির মাধ্যমে দরিদ্র জনগোষ্টিকে ধূমপানে নিরুৎসাহিত করা সম্ভব এই আহ্বানে তামাক বিরোধী নারী জোট (তাবিনাজ) ‘তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ আ

Read more... View: 3024 Leave Comment (1)


রোকেয়া বেগম


Saturday 26 May 2012

সামুদ্রিক সম্পদ সম্পর্কে আমাদের অসচেতনতা রয়েছে। একে রক্ষা জরুরী। দুই হাজার বারো সালের পরিবেশ দিবসে এটাই ছিল প্রধান বিষয়।

২২ মে, ২০১২ বিশ্ব প্রাণবেচিত্র্য দিবস। বিশ্ব প্রাণবৈচিত্র্য দিবস উপলক্ষে বীজবিস্তার ফাউনডেশান ও নয়াকৃষি আন্দোলন যৌথভাবে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানব বন্ধনের অয়োজন করে। বিকেল ৩ টা থেকে ৪ টা পর্যন্ত এই মানব বন্ধ চলে। মানব বন্ধনে উপস্থিত সদস্য ছিলেন প্রায় ১০০ জন। এই দিবসে এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল।“সমুদ্রের সম্পদ রক্ষা করা আমাদের কর্তব্য।” মানব বন্ধনটি পরিচালনা করেন বীজবিস্তার ফাউনডেশানের সদস্য সীমা দাস সীমু। সীমা দাস সীমু বলেন, এই পৃথিবীতে সকলের বাঁচার অধিকার

Read more... View: 3776 Leave Comment (1)


স্থানীয় জাতের বেগুন রক্ষা করুন

প্রতিবাদ ও দুনিয়ার সেরা বিজ্ঞানীদের সাবধান বাণী উপেক্ষা করে ক্ষতিকর বিটিবেগুন বা বিকৃত বেগুনের জাত বাংলাদেশে প্রবর্তন ও বাজারজাতের অপপ্রয়াস চলছে। বেগুন গাছে মাটীর ব্যাক্টেরিয়ার জিন ঢুকিয়ে পুরা বেগুন গাছকেই বিষাক্ত করা হয়। সেই গাছ ফল আর ডগা ছিদ্রকারী পোকা খেলে মরে যায়, কিন্তু বিষাক্ত বেগুন মানুষ খেলে ক্ষতি হয় না, এই হচ্ছে বৈজ্ঞানিক দাবি।

কী দরকার? কারন সারা দুনিয়ায় বেগুনের বিলিয়ন ডলার ব্যবসা। মার্কিন বহুজাতিক কম্পানি মনসান্টো ও ভারতীয় কোম্পানি মাহিকো তা তাদের একচেটিয়া নিয়ন্ত্রণে নিতে চায়। এর কারিগরি দিকের মালিকানাও তাদের।  বাংলাদেশের বেগুনের ওপর এই কারিগরি খাটীয়ে তার ওপর বুদ্ধিবৃত্তিক মালিকানা দাবি করছে তারা। অন্য দিনে বাংলাদেশের স্থানীয় বেগুন ধ্বংস করে শুধু কম্পানির বেগুন  আমাদের খাওয়াতে চায়। জীবন ও স্বাস্থ্যের ওপর যার সম্ভাব্য ঝুঁকি মারাত্মক হতে পারে।

বাংলাদেশের প্রাণবৈচিত্রের ওপর বহুজাতিক কম্পানির দখলদারির এই কৌশল প্রতিহত করতে হলে নিজেদের বেগুনের জাত চেনা ও রক্ষা করা জরুরী। এটা আমাদের সকলের সচেতনতা ছাড়া সম্ভব নয়। অতএব নিজেদের বেগুনের জাত সম্পর্কে জানুন, এবং নয়াকৃষি আন্দোলনের কৃষকদের সহায়তা করুন। এর বিরুদ্ধে লড়তে হলে নিজেদের জাত রক্ষা করার বিকল্প নাই।

প্রাণবৈচিত্রের উৎসভূমি (origin of diversity) হিসাবে বাংলাদেশ বেগুনের বৈচিত্র্যের দিক থেকে দুনিয়ার যে কোন দেশের চেয়ে সেরা। বেগুনের আন্তর্জাতিক বাজার বিশাল, কারণ সব্জির মধ্যে বেগুন সুস্বাদু এবং এর মধ্যে তেল (fat) নাই বললেই চলে। তার মানে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি নিশ্চিত করবার জন্যও আমাদের দেশি জাতের বেগুন রক্ষা করতে হবে।

নয়াকৃষি আন্দোলন যে সব বেগুন নিয়মিত চাষ করে তার কিছু ছবি এখানে দেওয়া হোল।


Protest Against Btbrinjal Continues

SUPPORT PEOPLE"S PROTEST AGAINST BtBRINJAL

Pictures of rallies and protests against Btbrinjal. Farmers, scientists, environmentalists, ecologists, lawyers, teachers and consumers have been protesting agaginst Btbrinjal since
Bangladesh Agriculture Research Institute (BARI) was trying to get approval from the government for cultivation and commercial release based on inadequate, incomplete and unethical research practice. GMO promoters Undermined strict adherece of  'preacuationeruy principle' during field trial necessery to protect environment and all life forms including human beings from potential environmental and health effects of the genetically modified crops.


UBINIG Centre (BIDDAGHORS)

Nayakrishi centers in the districts of Tangail, Pabna, Cox’s Bazar, Kushtia.


 Introducing Dai Mas (Traditional Birth Attendants)

Introducing key leaders of the rural health movement in Bangladesh.

Dai Ma (Traditional Birth Attendants) plays a major role in rural health systems particularly in maternal & child health and in the use and conservation of medicinal plants. UBINIG is working with them for a long time to develop a link with their practice with agro-ecological approach to health, medicine and nutrition led by Nayakrishi farming communities who practice biodiversity based ecological agriculture. Dai Mas are now organised into a network engaged in innovative knowledge practices and institutional experiments. This will enable them to contribute more effectively to national health system. They have strong grass root connections and effective social network. They are self-motivated and monitor the health of mother and child on their own as a responsible member of the community. Sense of responsibility come from their being woman and the natural instinct to help other women in child birth and child rearing. A command on indigenous knowledge and profound understanding of reproductive and child health make them unique in their role in the community. UBINIG is working with theme to find innovative and effective ways to link them with national health system.


Daighors (দাইঘর)

Translating Dai Mas as 'Traditioal Birth Attendants' misses the profound cultural, social and knowledge based practices of women in rural areas of Bangladesh. First, Dai Ma’s symbolises a social relationship. Her responsibility does not star during childbirth, rather when a woman comes as a bride in her village or locality. She is the main source of reproductive knowledge for women in reproductive age. In most cases, the Dai Ma is connected to the families of her in laws by helping in the birth of her husband. Dais are always married and have children, this is her acceptability as 'Dai' (birth attendant) in the village. She is the living medical and health record of the women in the village and without her a community health care system is almost impossible on which the national health care system has to rely on.


Glimpses from Nayakrishi Villages

Biodiversity-based ecological agriculture is note merely 'ORGANIC', but a unique practice without pesticide, chemicals and ground water extraction to achieve the highest systemic yield from per acre of farm land. Households are small ecological production units constituting a complex design encompassing the whole village. You can purchase the farmer's produce from Shashyshaprabartana.


Samples of  UBINIG Posters

Posters express concerns and ideas. They are interesting materilas to read and listen as well participate in the issues one is committed. UBINIG regularly prints and shares posters as a way  to build up networks and communications.  Web through some examples posted here.


UBINIG PUBLICATIONS (ENGLISH)

UBINIG publications. To order please contact UBINIG (Policy Research for Development Alternative) 88 0178 001 1194 or`

Narigrantha Prabartana

6/8 Sir Syed Road, Mohammedpur, Dhaka -1207.

Phone:  880-2-9140812 . email: narigrantha@gmail.com


আমাদের বাংলা প্রকাশনা

উবিনীগ (উন্নয়ন বিকল্পের নীতি নির্ধারণী গবেষণা)  থেকে প্রকাশিত গুরুত্বপূর্ণ বাংলা বইয়ের তালিকা। আরও জানার জন্য উবিনীগ অফিসে যোগাযোগ করুন (মোবাইল: ০১৭৮০০১১১৯৪)। বই সরবরাহ ও যোগাযোগের জন্য:

নারীগ্রন্থ প্রবর্তনা  ৬/৮ স্যার সৈয়দ রোড, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭, বাংলাদেশ।
ফোন: ৮৮০-২-৯১৪০৮১২, মোবাইল: ০১৯৫ ৪৪৭৬০৬৪ ।  ই-মেইল: narigrantha@gmail.com


Nayakrishi Seed Wealth Center and Seed Huts

Nayakrishi Seed Wealth Center and Seed Huts



EMAIL
PASSWORD